বন্যার পানি কমলেও দুর্ভোগ বাড়ছে জামালপুরে

বন্যার পানি নেমে যাওয়ায় অনেক বাড়িতে চলছে ঘর মেরামতের কাজ

বন্যার পানি কমলেও যমুনা ও ব্রহ্মপুত্রের বিস্তীর্ণ চরাঞ্চল এবং নিম্নাঞ্চলের পানি সরে না যাওয়ায় চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন জামালপুরের লাখো মানুষ। এসব এলাকার মানুষ প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে পানিবন্দি থেকে দুর্বিষহ জীবনযাপন করলেও এখন পর্যন্ত কোনও ত্রাণ সামগ্রী পায়নি বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। সবচেয়ে বেশি কষ্টে দিনমজুর ও নিম্নআয়ের পরিবারগুলো। কাজ না থাকায় দু’বেলা খাবারও মিলছে না তাদের। চারণভূমি পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় সংকট দেখা দিয়েছে গোখাদ্যেরও।

ইসলামপুরের চিনাডুলি ইউনিয়নের খামারপাড়া এলাকায় গিয়ে দেখা যায় বন্যার পানি কমে যাওয়ায় নিজ বাড়িতে ফিরে ঘরবাড়ি মেরামত করছেন স্থানীয়রা।বন্যার পর ইসলামপুরের নদী কবলিত এলাকা

সেখানকার বাসিন্দা আব্দুল জব্বার জানান, অনেকদিন বন্যা কবলিত থাকার পরও কোন জনপ্রতিনিধি খোঁজ নেয়নি তাদের। পানি কমায় বাড়ি ফিরেছেন তারা। বাড়িঘর সংস্কার করার মতো উপায়ও নেই। তাই সরকারি সহায়তা কামনা করছেন।

বন্যার পানির স্রোতে কাঁচা-পাকা অনেক রাস্তা ভেঙে যাওয়ায় যাতায়াত এবং মালামাল পরিবহনেও চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন এখানকার মানুষ।

জামালপুরে গরুর রাখার শুকনো জায়গা না পেয়ে ব্রিজের ওপর রেখেছেন বন্যার্তরা

বন্যায় জামালপুরে এ পর্যন্ত ৯৬ কিলোমিটার আংশিক কাঁচা রাস্তা এবং ১৭ কিলোমিটার পাকা রাস্তা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বন্যার পানি কমলে এসব ক্ষতিগ্রস্ত সড়ক মেরামত করা হবে বলে জানিয়েছে এলজিইডির সিনিয়র সহকারী প্রকৌশলী সাদেকুজ্জামান।

অন্যদিকে মাদারগঞ্জের পাকরুল এলাকায় যমুনার পানি কমার সঙ্গে সঙ্গে ভাঙন দেখা দিয়েছে।  এতে ক্ষতির মুখে পড়েছে স্থানীয়রা।

 

 

 





আরও পড়ূন বাংলা ট্রিবিউনে

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: