কোথায় যাবেন সাহেদ করিম? সিঙ্গাপুর, কানাডা নাকি থাইল্যান্ড?

বাংলাদেশি নতুন আরো এক রত্নকে গ্রহণ করার সুযোগ এলো সিঙ্গাপুর, কানাডা ও থাইল্যান্ডের মতো দেশগুলোর ভাগ্যে। ভুয়া করোনা টেস্ট, সরকারের সাথে ফ্রি চিকিৎসা দেয়ার চুক্তি করার পরেও রোগীদের কাছ থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা চিকিৎসা বিল নেওয়া, ফ্রি চিকিৎসা দেয়ার কথা বলে সেই বিল আবার সরকারের কাছ থেকে নেয়া, গত ৬ বছর ধরে লাইসেন্স ছাড়াই হাসপাতাল পরিচালনাসহ প্রতারণার নানাবিধ অভিযোগে অভিযুক্ত রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান সাহেদ করিম এখন ঘুরছেন গ্রেফতারি পরোয়ানা বুকে নিয়ে। তবে দ্রুতই হয়তো ট্যুরে যাবেন তিনি। সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশ থেকে কানাডা, সিঙ্গাপুর, থাইল্যান্ড ও মালয়েশিয়ার চার্টার্ড ফ্লাইটগুলো বিশ্লেষণ করে ধারণা করা হচ্ছে, অতিদ্রুত এইসব দেশের কোন একটায় পাড়ি জমাবেন সাহেদ করিম।

কোন দেশে যেতে পারেন সাহেদ? এই নিয়েই দেশবাসীর নানাবিধ জল্পনা কল্পনা শুরু হয়েছে। শিওর হতে তাই আমরা কথা বলেছিলাম সাহেদ করিমের সাথে। তার একটি ফেক (রিজেন্ট হাসপাতালের করোনা টেস্টের মতো) আইডিতে নক দিলে বেশ অবাক হয়ে সাহেদ করিম বলেন, ‘ফেক আইডিতে কেন? আমি কি ফেরারি নাকি মিয়া! প্রকাশ্যেই আমি সাক্ষাৎকার দিতে পারি। জানেন না আমি আওয়ামী লীগের আন্তর্জাতিক কমিটির সদস্য? কোথায় আসবো বলেন…’

প্রতারিত হওয়ার সম্ভাবনা এড়াতে আমরা ফেক আইডির সাথে কথা চালিয়ে যাই। আড়মোড়া ও হামির ইমোসহ বিদেশে যাওয়ার বিষয়ে সাহেদ করিম বলেন, ‘খুব একটা দরকার নাই যদিও। তারপরও অনেকদিন ধরে বাসায়, বোরিং লাগছে। তাছাড়া ক্ষমতাবান কিছু ভাইব্রাদারদের সাথে পরামর্শ করে মনে হলো, খুব দ্রুতই আমি অসুস্থ হয়ে চিকিৎসাসেবা নেয়ার জন্যও বাইরে যেতে পারি।’

কোন দেশে যাবেন জানতে চাইলে Three countries I would visit নামে একটা ফেসবুক গেমের লিংক পাঠিয়ে বলেন, ‘গেমটা দারুণ। মজা পাচ্ছি। আসেন একসাথে খেলি। এত তাড়া নাই, খেলতে খেলতে সিদ্ধান্ত নেয়া যাবে।’

গেম খেলতে খেলতেই তিনি বলেন, ‘শিকদার ব্রাদারের সাথে আলোচনা করেছি। উনাদের বলছি চার্টার্ড বিমানের শিডিউলটা ইনবক্স করতে। হানিফ সাহেবের থেকেও কানাডার অবস্থা জেনে নিলাম। দেখি, দ্রুতই সুখবর পাবেন।’

এর আগে ভুয়া করোনা পরীক্ষার দায়ে গ্রেফতার হওয়া জেকেজি হেলথকেয়ারের আরিফ সাহেবের জন্য বেশ আফসোস করে সাহেদ করিম বলেন, ‘আরিফ ভাই বাইরে থাকলে তাকেও সাথে নিতাম। আসলে সমমনা মানুষ ছাড়া ট্রাভেল করে মজা পাওয়া যায় না।’

তবে যে দেশেই যান, যাওয়ার চার্টার্ড ফ্লাইটের খরচ, ওই দেশের থাকা খাওয়াসহ নতুন ব্যবসা শুরু করার টাকা বাংলাদেশ সরকারের কাছে দাবি করে সাহেদ বলেন, ‘বিল তৈরি হয়ে গেছে। আশা করছি ঠিক জায়গায় সাবমিট করলে টাকাগুলো পেয়ে যাবো।’

আপকামিং জার্নির শুভকামনা জানানোর পর বিদায় নিতে চাইলে একটা সিক্রেট কনভারসেশন ট্যাব খুলে সাহেদ করিম বলেন, ‘তবে সত্যি কথা কি জানেন? আমি আসলে কোথাও যেতে চাই না। এই দেশের মতো বাটপারি করার সুযোগ পৃথিবীর আর কোন দেশে নাই। এজন্যই দেশটারে খুব ভালোবাসি। যেখানেই যাই, আবার আসিবো ফিরে এই বাংলায়…’

 

আরও পড়ুন-

‘ক্যাচ মি ইফ ইউ ক্যান’ পদক পাচ্ছেন রিজেন্ট চেয়ারম্যান সাহেদ করিম

বাইচান্সের লাইসেন্স নাই, তাই আমাদেরও নাই: রিজেন্ট হাসপাতাল

রিজেন্ট হাসপাতাল যে ১২টি সম্ভাব্য ‘পদ্ধতি’তে করোনা পরীক্ষা করিয়েছে

রিজেন্ট হাসপাতালের মতো খাতা না দেখেই রেজাল্ট দেয়ার অনুরোধ জানালো শিক্ষার্থীরা





আরও পড়ুন eআরকি

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: