অনলাইন পশুহাটের ওয়েবসাইটে চালু হচ্ছে ‘গরুর পাছায় থাপ্পড় দিন’ বাটন

দেখতে দেখতে চলে এলো কোরবানির ঈদ। এই ঈদে চাঁদ দেখা নিয়ে অতটা ব্যস্ততা না থাকলেও গরু নিয়ে প্রচুর দিগদারি করা লাগে৷ কিন্তু, কেমন হতে যাচ্ছে এবারের করোনা-স্পেশাল অনলাইন পশুর হাট? কোরবানির গরু কেনার সেই আদি ও অকৃত্রিম অনুভূতি অটুট থাকবে কিনা সেটা নিয়েও জনমনে আছে সংশয়। অবশ্য এসব আশংঙ্কা তুড়ি মেরে উড়িয়ে দিয়েছে অনলাইন পশুহাটের আয়োজক কমিটি। তারা জানিয়েছেন, পশুহাটের ওয়েবসাইটে অচিরেই চালু হবে ‘গরুর পাছায় থাপ্পড় দিন’ বাটন।

এ ব্যাপারে বিস্তারিত আলাপ করতে আমরা ভিডিও কল দেই অনলাইন পশুহাটের আয়োজক কমিটির সভাপতিকে। ভিডিও কল রিসিভ করেই তিনি একটা তিন দাঁতের হাসি দিয়ে বলেন, ‘ভাই হাট তো এখনো বসে নাই৷ আপনে কি প্রি অর্ডার করতে চাইতেছেন?’ এ সময় তাকে পাশে থাকা লাল গরুর পাছায় সজোরে থাপ্পোড় মারতে দেখা যায়৷

পরিচয় দিয়ে অনলাইন হাটের সুযোগ সুবিধার ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এইখানে পুরাটাই সুবিধা। হাঁইটা হাটে আসার ঝামেলা নাই। এমনকি ভিডিও কলে গরুর দাঁত দেখানোর সুব্যবস্থাও থাকবে।’ বলেই তিনি নিজের দুই পাটি দাঁত বের করে একটা ডেমো দেখান।

‘গরুর পাছায় থাপ্পড় দিন’ বাটনের মাধ্যমে মানুষ পাবে গরু কেনার সেই আদিম অনুভূতি, এমনটা জানিয়ে তিনি বিজ্ঞাপনী ভঙ্গিতে আরো বলেন, ‘তাই চালু হওয়ার সাথে সাথে অনলাইন হাটে আসুন। গরু পছন্দ করুন। পাছায় থাবড় মেরে নিয়ে যান বাসায়৷’

এ পর্যায়ে সম্ভবত বিজ্ঞাপনের অংশ হিসেবেই পাশে দাঁড়ানো তার দুইজন এসিস্টেন্ট একইসাথে দুটি গরুর পশ্চাৎদেশে থাবড় মারেন।

এদিকে অনলাইনে গরু কেনার ক্ষেত্রে এখন আর কোনো সমস্যা রইলো না, এমনটা জানিয়ে অ্যাপে রেজিস্টার করা ফার্স্ট কাস্টমার জানান, ‘বলতে পারেন গরু কেনার মূল আনন্দটাই এই থাবড়াথাবড়ি পার্টে। গরুর ইয়েতে থাপ্পড় মারাটাই তো গরু কিনতে যাওয়া, হাঁটিয়ে এনার মূল আকর্ষণ! এমন একটা অ্যাপ না এলে এবার হয়তো গরুই কিনতাম না!’

অন্যদিকে eআরকির প্রতিবেদক এম আর রহমান আমাদের জানান, ‘গরুর পাছায় থাপ্পড় দিন’ নামক বাটন চাপার ক্ষেত্রে সতর্ক থাকতে হবে। বেশি জোরে চাপ দিলে থাপ্পড় জোরে হবে। তখন গরু পেছনের পা দিয়ে লাথি মারতে পারে।





আরও পড়ুন eআরকিতে

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: