পাটগ্রামে সোনালী ব্যাংকের দুই কর্মকর্তার পরিবারের ১১ জনের করোনা শনাক্ত

লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলায় গতকাল ও সোমবার দুদিনে ১৫ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। তাঁদের মধ্যে ২ ব্যাংক কর্মকর্তার পরিবারের ১১ সদস্য, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি), স্ত্রীসহ উপপরিদর্শক (এসআই) ও ১ ব্যবসায়ী রয়েছেন।

আজ বুধবার দুপুরে এসব তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা অরুপ রায়।

পাটগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্র জানায়, গত ৩০ জুন আক্রান্ত ব্যক্তিদের নমুনা পাঠানো হয় রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। সেখানে পরীক্ষার পর সোমবার ১২ জন এবং গতকাল তিনজনের সংক্রমণ শনাক্ত হয়। গতকাল পাটগ্রাম থানার ওসি, এসআই ও তাঁর স্ত্রীর শনাক্ত হয়।

পাটগ্রাম সোনালী ব্যাংক শাখার দুই কর্মকর্তার পর তাঁদের পরিবারের সদস্যরা সংক্রমিত হয়েছেন। পৌরসভার পূর্ব পাড়ার বাসিন্দা এক কর্মকর্তা আক্রান্ত হয়ে বাড়িতে আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন। সোমবার তাঁর পরিবারের আট সদস্যের নমুনা পজিটিভ আসে। একই দিন জগতবেড় ইউনিয়নের বাসিন্দা আক্রান্ত আরেক কর্মকর্তার পরিবারের তিন সদস্যের নমুনা পজিটিভ আসে। এ ছাড়া একজন ব্যবসায়ী আক্রান্ত হয়েছেন।

পাটগ্রাম উপজেলায় এ পর্যন্ত ৪৪২ জনের নমুনা সংগ্রহ করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পিসিআর ল্যাবে পাঠানো হয়েছে। এর মধ্যে ৩৮৮ জনের প্রতিবেদন এসেছে। এতে মোট ৬৮ জন শনাক্ত হয়েছেন। সুস্থ হয়েছেন ১৪ জন। মারা গেছেন একজন।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা অরুপ রায় বলেন, উপজেলাটিতে সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় তা রেড জোনের দিকে ধাবিত হতে যাচ্ছে। রেড জোন ঘোষণার ব্যাপারে স্বাস্থা বিভাগকে জানানো হয়েছে। কাল বৃহস্পতিবার উপজেলা করোনাভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির বৈঠক আহ্বান করা হয়েছে পাটগ্রাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) কার্যালয়ে। বৈঠকে রেড জোন ঘোষণার বিষয়ে আলোচনা করা হবে। তিনি সকলকে মাস্ক পরা ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানান।





সম্পূর্ণ রিপোর্টটি প্রথম আলোতে পড়ুন

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: