ক্রিকেটারদের পাওনার অর্ধেক বুঝিয়ে দেওয়ার আহ্বান কোয়াবের

করোনাভাইরাসের কারণে এক রাউন্ড পরই বন্ধ হয়ে গেছে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ (ডিপিএল)। ফলে উন্মুক্ত পদ্ধতিতে হওয়া দলবদলের সুফল পাননি ক্রিকেটাররা। যাদের রুটি-রুজির উৎস ঘরোয়া ক্রিকেটের এই প্রতিযোগিতা, তারা পড়েছেন শঙ্কাতে। এই অবস্থায় ক্রিকেটার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (কোয়াব) বিসিবির কাছে অনুরোধ করেছে, তারা যেন ক্লাবগুলোর সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে ক্রিকেটারদের পাওনার অর্ধেক বুঝিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করে।

অর্ধেক তো দূরে থাক, উন্মুক্ত পদ্ধতিতে দল-বদল সম্পন্ন হওয়ার পরপরই ২৫ শতাংশ পাওনা বুঝিয়ে দেওয়ার যে শর্ত ছিল, সেটাই পূরণ করেনি ৪ ক্লাব!

করোনাকালে বিসিবি নিজস্ব উদ্যোগে দুই দফায় প্রিমিয়ার লিগের ক্রিকেটারদের আর্থিক অনুদান ৪০ হাজার টাকা (প্রথম পর্যায়ে ৩০ হাজার, দ্বিতীয় পর্যায়ে ১০ হাজার) করে দিয়ে পাশে দাঁড়িয়েছে। তবে স্থগিত লিগের ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত হওয়ায় ক্রিকেটারদের পাওনা আদায়ে মাঠে নেমেছে বাংলাদেশে ক্রিকেটারদের সংগঠন কোয়াব।

গত মঙ্গলবার রাতে কোয়াব কর্তারা অনলাইন সভায় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) ও ক্রিকেট কমিটি অব ঢাকা মেট্রোপলিসের (সিসিডিএম) মাধ্যমে ক্লাবগুলোর কাছে দ্রুত চুক্তির ৫০ শতাংশ পারিশ্রমিক দিয়ে দেওয়ার আবেদন জানিয়েছে। আবেদনে বিসিবি ও সিসিডিএমের পক্ষ থেকে ইতিবাচক সাড়া পেয়েছে বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে কোয়াব। বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী ও সিসিডিএম চেয়ারম্যান কাজী ইনাম আহমেদ পরিস্থিতি বিবেচনার আশ্বাস দিয়েছেন বলে জানানো হয়েছে কোয়াবের বিবৃতিতে।

অনলাইন সভায় ছিলেন কোয়াব সভাপতি নাইমুর রহমান দুর্জয়, সহ-সভাপতি খালেদ মাহমুদ সুজন, সাধারণ সম্পাদক দেবব্রত পাল, ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল, টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ, সৌম্য সরকার, লিটন দাস, আব্দুর রাজ্জাক, তুষার ইমরান, জহুরুল ইসলাম, নাসির হোসেন, এনামুল হক জুনিয়র, শাহরিয়ার নাফীস, নাজমুল হোসেন শান্ত, মোসাদ্দেক হোসেন, আফিফ হোসেন ও মোহাম্মদ নাঈম।





আরও পড়ূন বাংলা ট্রিবিউনে

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: