গাজীপুরে করোনায় সংক্রমিতের সংখ্যা কমছে

প্রতীকী ছবি। ছবি: রয়টার্সগাজীপুরে করোনাভাইরাসে প্রায় চার সপ্তাহ ধরে সংক্রমণ ঊর্ধ্বমুখী থাকার পর সাত দিন ধরে সংক্রমিতের সংখ্যা কমতে শুরু করেছে। আজ বুধবার দেওয়া পরীক্ষার প্রতিবেদনে দেখা গেছে, ২৬২ জনের নমুনা পরীক্ষা করে করোনায় সংক্রমিত পাওয়া গেছে মাত্র ১৭ জন। আর গত সাত দিনে সংক্রমিত হয়েছেন মাত্র ২৫৯ জন। আর হাসপাতালে ভর্তি আছেন মাত্র ১১ জন করোনা রোগী। এতে জনমনে কিছুটা হলেও স্বস্তি ফিরেছে।

গাজীপুর স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, গাজীপুরে করোনাভাইরাসে গত সাত দিনে সংক্রমিত হয়েছেন ২৫৯ জন। গত ২৪ জুন সংক্রমিত হয়েছেন ৭৩ জন, ২৭ জুন সংক্রমিত হয়েছেন মাত্র ৪ জন এবং ৩০ জুন সংক্রমিত হয়েছেন মাত্র ৩৭ জন। গত মাসের শেষ সাত দিনে সংক্রমিত হয়েছেন ৪২১ জন। অথচ গত মাসের ৭ জুন পর্যন্ত মোট সংক্রমিত ছিলেন ১ হাজার ৭০৪ জন, ১৫ জুন ছিল ২ হাজার ৩২৫ জন। গত জুন মাসে ১ দিনে সবচেয়ে বেশি সংক্রমিত হয় ২৫ জুন। সেদিন সংক্রমিত হয়েছিলেন ১০২ জন। গত মাসে সংক্রমিতের সংখ্যা দাঁড়ায় ৩ হাজার ৪৩৫। এলাকাভিত্তিক সংক্রমিতের সংখ্যা ছিলো ২ হাজার ৯০ জন। কালিয়াকৈরে ৪১৩ জন, কালীগঞ্জে ৩০৯, কাপাসিয়ায় ২২৩ ও শ্রীপুর উপজেলায় ৪০০ জন ছিলেন।

এদিকে চলতি মাসের শুরু থেকেই সংক্রমিতের সংখ্যা কমছে। ২ জুলাই ৩৫ জন সংক্রমিত হয়। ৩ জুলাই ৪২ জন, ৪ জুলাই ২১ জন, ৫ জুলাই ৯২ জন, ৬ জুলাই ১৫ জন, ৭ জুলাই ৩৭ জন ও আজ ছিলেন ১৭ জন। গত ৭ দিনে সংক্রমিতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৫৯। ক্রমাগত হারে গাজীপুরে সংক্রমিতের সংখ্যা কমে আসছে। বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকেরা মনে করছেন, সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চললে সংক্রমিতের সংখ্যা আরও কমে আসবে।

গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপপরিচালক তপন কান্তি সরকার বলেন, তাঁদের হাসপাতালটি করোনা রোগীদের জন্য ডেডিকেটেড হাসপাতাল হিসেবে ঘোষণা করার পর থেকে এখানে শুধু করোনা রোগীদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। তবে করোনোয় সংক্রমিত ব্যক্তিদের বেশির ভাগ রোগী বাড়িতে চিকিৎসা নিচ্ছেন। আজ পর্যন্ত হাসপাতালে ১১ জন রোগী ভর্তি আছেন এবং ৩ জন আছেন আইসোলেশনে।

গাজীপুর সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, গাজীপুরে নতুন করে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন ১৭ জন। তাঁদের মধ্যে গাজীপুর সদরে ১০ জন, কালিয়াকৈর উপজেলায় ৩ জন, কাপাসিয়ায় ২ জন ও শ্রীপুরে ২ জন। এ নিয়ে গাজীপুরে মোট সংক্রমিতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩ হাজার ৭৮২। তার মধ্যে কালিয়াকৈর উপজেলায় ৪৫৩ জন, কালীগঞ্জে ৩৪৭, কাপাসিয়াতে ২৬৫, শ্রীপুর উপজেলায় ৪৭১, গাজীপুর সদর উপজেলা ও সিটি করপোরেশন এলাকা মিলে ২ হাজার ২৪৬ জন। করোনায় সংক্রমিত হয়ে জেলায় এ পর্যন্ত মারা গেছেন ৪৬ জন। সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৬০০ জন। গাজীপুর জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় ২৬২ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১৭ জনের করোনা পজিটিভ হয়েছে। আর গাজীপুর থেকে এ পর্যন্ত ২৬ হাজার ৮৯০ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। পজিটিভ হয়েছে ৩ হাজার ৭৮২ জনের।

গাজীপুরের সিভিল সার্জন মো. খাইরুজ্জামান বলেন, ‘চলতি মাসে অনেকটাই কমে আসছে করোনা সংক্রমণের সংখ্যা। তবে এখনই নিশ্চিন্ত হওয়া যাবে না। আমাদের আরও কিছু সময় অপেক্ষা করতে হবে। এমনও হতে পারে, পরীক্ষার জন্য টাকা লাগছে তাই উপসর্গ থাকলেও অনেকে পরীক্ষা করছেন না বলে ধারণা করা হচ্ছে।’

গাজীপুর জেলা প্রশাসক এস এম তরিকুল ইসলাম জানান, গাজীপুরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ কমানোর জন্য নানা ধরনের সচেতনতামূলক কার্যক্রম চালানো হচ্ছে। মানুষের মাস্ক পরতে বাধ্য করা হচ্ছে। সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে বলা হচ্ছে।





সম্পূর্ণ রিপোর্টটি প্রথম আলোতে পড়ুন

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: