পাঠকের প্রশ্ন: ডায়েট

শামছুন্নাহার নাহিদডায়েট, ব্যায়াম ও ওজন কমানো–বাড়ানো নিয়ে পাঠকদের নির্বাচিত প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন বারডেম হাসপাতালের প্রধান পুষ্টিবিদ ও বিভাগীয় প্রধান শামছুন্নাহার নাহিদ

প্রশ্ন: আমার বয়স ১৮ বছর, উচ্চতা ৫ ফুট ৪ ইঞ্চি। বয়স অনুযায়ী কি এটা ঠিক আছে? লম্বা হওয়ার জন্য কী করা যেতে পারে? মাথার চুল পড়ে যাওয়ার কারণ এবং তা রোধ করা যায় কীভাবে?
তাইমীর তানহা বিন হারুণ
উত্তর: প্রত্যেক মানুষেরই প্রতিদিন ৫০-১০০টা করে চুল পড়ে, পাশাপাশি নতুনভাবে চুল ওঠার কারণে আনুপাতিক হারে চুলের ঘনত্ব প্রায় সমান থাকে, কিন্তু যখন নতুন চুল কম গজায়, তখনই আমরা বলি চুল ওঠে বা কমে যাচ্ছে। এর অবশ্য কিছু কারণ থাকে, যেমন—
● শরীরে পুষ্টির অভাব
● শরীরে হরমোনের ভারসাম্যহীনতা
● কিছু ওষুধ (ডিপ্রেশন, আর্থ্রাইটিস ইত্যাদি রোগের) খেতে থাকলে
● খুব বেশি চাপে বা দুশ্চিন্তায় থাকলে
● কিছু হেয়ারস্টাইল বা হেয়ার ট্রিটমেন্টের (হট অয়েল) জন্য।
ফলে চুল পড়া রোধ করার জন্য সার্বিকভাবে তোমার চুলের যত্ন নিতে হবে।

খাবার যা খেতে হবে
● পর্যাপ্ত পরিমাণে আমিষ খেতে হবে, যেমন মাংস, ডিম, যা প্রোটিন, বায়োটিনসমৃদ্ধ। এই বায়োটিন থেকে চুলের প্রোটিন ক্যারোটিন তৈরি করে চুল লম্বা করতে সাহায্য করে।
● তৈলাক্ত মাছ, যাতে প্রচুর পরিমাণে ওমেগা-৩ ও ওমেগা-৬ ফ্যাটি অ্যাসিড, ভিটামিন ই থাকে। এগুলো চুলের ঘনত্ব বাড়াতে সাহায্য করে।
● ভিটামিন এ, বেটা-ক্যারোটিনসমৃদ্ধ খাবার, যা সিবাম তৈরিতে সাহায্য করে। সিবাম চুলের সুস্বাস্থ্য বজায় রাখতে সাহায্য করে ( যেমন মিষ্টি আলু, পালংশাক ইত্যাদি)
● ভিটামিন সি-সমৃদ্ধ খাবার খেতে হবে, যা চুলের স্টেনডেন ধরে রাখার সহকারী কোলাজেন তৈরিতে সহায়তা করে।
● বাদাম, সয়াবিনবীজ, অর্থাৎ ভিটামিন বি, ই, জিংক, অ্যান্টি-অক্সিডেন্টসমৃদ্ধ খাবার এবং বিশেষ করে স্পরমিডিন আছে, এমন খাবার চুল লম্বার করার জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ।
● ভেষজ তেল ব্যবহার করা: নারকেল তেল, আমন্ড তেল, জলপাই তেল, খনিজ ও বাদাম তেল চুলের পুষ্টি ও স্বাস্থ্যের জন্য জরুরি।

বাহ্যিক যত্ন
● চুল প্রতিদিন শ্যাম্পু করবেন না।
● প্রতিদিন পরিষ্কার (ধুয়ে) করে, ভালোভাবে শুকিয়ে নিতে হবে।
● চুলের গোড়ায় রক্ত সঞ্চালন বাড়াতে বেশি করে চুল আঁচড়াতে হবে।
● ১০-১২ সপ্তাহ পরপর ভেঙে যাওয়া চুলের আগা ছেঁটে বা কেটে ফেলতে হবে।
● চাপ কমাতে পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুমাতে হবে।

ঘোষণা
পাঠকের প্রশ্ন, বিশেষজ্ঞের উত্তর
পাঠকের প্রশ্ন পাঠানো যাবে ই–মেইলে, ডাকে এবং প্র অধুনার ফেসবুক পেজের ইনবক্সে। ই–মেইল ঠিকানা: adhuna@prothomalo.com
(সাবজেক্ট হিসেবে লিখুন ‘পাঠকের প্রশ্ন’)
ডাক ঠিকানা: প্র অধুনা, প্রথম আলো, প্রগতি ইনস্যুরেন্স ভবন, ২০–২১ কারওয়ান বাজার, ঢাকা ১২১৫। (খামের ওপর লিখুন ‘পাঠকের প্রশ্ন’)
ফেসবুক পেজ: fb.com/Adhuna.PA





সম্পূর্ণ রিপোর্টটি প্রথম আলোতে পড়ুন

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: