করোনায় স্বামীর মৃত্যু, আতঙ্কে ২ মেয়ে নিয়ে রেল লাইনে ঝাঁপ নারীর

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর মৃত্যুতেই শেষ হচ্ছে নাআতঙ্ক। যিনি বা যারা মারা যাচ্ছেন বা আক্রান্ত হচ্ছেন সামাজিকভাবে হোক বা মানসিকভাবে সেই ভুক্তভোগীদের পরিবারও শেষ হয়ে যাচ্ছে। মঙ্গলবার উত্তরবঙ্গের শিলিগুড়িতে এক নারী রেলস্টেশনের একটি ফুটব্রিজ থেকে ঝাঁপ দিয়েছেন। ওই নারীর স্বামী কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছেন। পুলিশ জানিয়েছে, নারীর স্বামী স্থানীয় এক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক ছিলেন। কোভিড পজিটিভ হিসেবে তার মৃত্যুর কয়েক ঘণ্টা পরেই আত্মহত্যা করতে যান ওই নারী। সন্তানসহ তিনজনকেই গুরুতর আহত অবস্থায় দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে এবং অস্ত্রোপচারও করতে হয়েছে।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানায়, স্বামীর মৃত্যুর খবর পরিবারের কাছে এসে পৌঁছানোর পরেই পুলিশ এসে তাদের বাড়ির দিকে গলিটি ব্যারিকেড করে দেয়। ওই নারী আশঙ্কায় ছিলেন ছিলেন তিনি ও শিশুদের দেহেও কোভিড পজিটিভ ধরা পড়তে পারে। ব্যারিকেড করে দেওয়ার ফলে সমাজেও তিনি একঘরে হয়ে যাবেন এই আশঙ্কাও ছিল তার।

তবে মৃত্যুর খবরের পরে প্রতিবেশী এবং পুলিশ গলি ব্যারিকেড দিলেও যেভাবেই হোক নিজের দুই সন্তানকে নিয়ে ওই নারী বেরিয়ে পড়েন। একটি অটোরিকশা নিয়ে স্থানীয় নিউ জলপাইগুড়ি রেল স্টেশনে যান। ওই নারী তার সন্তানদের নিয়ে ফুট ওভারব্রিজে উঠেছিলেন। যাত্রীরা তাকে থামানোর আগেই তিনি বাচ্চাদের আঁকড়ে ধরে নীচে রেললাইনের উপর ঝাঁপিয়ে পড়েন। ওই নারীর দুই মেয়ের একজনের বয়স ২ এবং একজনের ৪।

খবরে বলা হয়েছে, তাদেরকে শিলিগুড়ির সরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

পশ্চিমবঙ্গের এই শহরে কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমাগতই বৃদ্ধি পেয়ে চলেছে। দার্জিলিং জেলায় কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা ৬৮৪ এবং ১০ জন মারা গেছেন।

 





আরও পড়ূন বাংলা ট্রিবিউনে

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: