নরসিংদীতে করোনায় সংক্রমিত হয়ে বিএনপি নেতার মৃত্যু

করোনাভাইরাস। ছবি: রয়টার্সনরসিংদীর সদর থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মো. নুরুল ইসলাম (৫২) করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে মারা গেছেন। আজ বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে চারটার দিকে রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। এর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও জেলা বিএনপির সভাপতি খায়রুল কবির।

মো. নুরুল ইসলাম সদর উপজেলার নজরপুর ইউনিয়নের জামালিয়াকান্দি গ্রামের আমিনুল ইসলামের ছেলে। তিনি নরসিংদী শহরের বৌয়াকুড় এলাকার বাসিন্দা হলেও দীর্ঘদিন ধরে তিনি রাজধানী ঢাকায় বসবাস করতেন।

স্থানীয় বিএনপির কয়েকজন নেতার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গত সোমবার তাঁর শ্বাসকষ্ট দেখা দেয়। পরে ওই দিনই তাঁকে রাজধানীর শমরিতা হাসপাতালে ভর্তি করা হয় এবং তিনি করোনায় সংক্রমিত কি না, তা নিশ্চিত হতে নমুনা পরীক্ষা করা হয়। পরে তাঁর শারীরিক অবস্থার আরও অবনতি হলে পরদিন রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরই মধ্যে তাঁর করোনা পজিটিভ থাকার খবর জানতে পারেন পরিবারের সদস্যরা। তিন দিন ওই হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন থাকার পর আজ বিকেল সাড়ে চারটার দিকে তাঁর মৃত্যু হয়।

পরিবারের সদস্যরা জানান, নুরুল ইসলাম কিছুদিন ধরে অসুস্থ বোধ করলেও তিনি ও তাঁর পরিবারের লোকজন তাঁর করোনায় সংক্রমিত হওয়ার বিষয়টি বুঝতে পারেননি। তবে দীর্ঘদিন ধরে নিউমোনিয়া ও অ্যাজমা রোগে ভুগছিলেন তিনি। মৃত্যুর পর তাঁর লাশ সদর উপজেলার নজরপুর ইউনিয়নের জামালিয়াকান্দি গ্রামের নিজ বাড়িতে আনা হচ্ছে। আগামীকাল শুক্রবার বাদ জুমা তাঁর জানাজা হবে।

বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও জেলা বিএনপির সভাপতি খায়রুল কবির খোকন বলেন, ‘মো. নুরুল ইসলামের মৃত্যুতে নরসিংদী জেলা, সদর বিএনপিসহ আমাদের অঙ্গ সংগঠনগুলোর সব নেতা–কর্মী গভীরভাবে শোকাহত। তাঁর মতো বলিষ্ঠ একজন নেতার অভাব আমাদের কখনোই পূরণ হবে না।’

 





সম্পূর্ণ রিপোর্টটি প্রথম আলোতে পড়ুন

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: