করোনায় প্রণোদনা চান কিন্ডার গার্টেন স্কুলের শিক্ষক-কর্মচারীরা

নড়াইলে কিন্ডার গার্টেন স্কুলের শিক্ষক-কর্মচারীরা মানববন্ধন করেন

ভয়াবহ দুর্যোগ করোনা মহামারিতে মানবেতর জীবনযাপন থেকে উদ্ধার পেতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিকট আর্থিক সহায়তা কামনা করেছেন দেশের কিন্ডার গার্টেন স্কুলের শিক্ষক-কর্মচারীরা। এ উপলক্ষে দুদিন ধরে জেলায় জেলায় মানববন্ধন করছে কিন্ডার গার্টেন স্কুলের সঙ্গে জড়িত শিক্ষক-কর্মচারীরা।

নড়াইল প্রতিনিধি জানান, করোনাভাইরাসের কারণে ঘরবন্দি সময়ে জেলার কিন্ডার গার্টেনগুলো বন্ধ থাকায় শিক্ষক-কর্মচারীদের বেতন বন্ধ হয়ে গেছে। কারণ, শিক্ষার্থীদের বেতনেই তাদের বেতন হয়। ক্লাস না হওয়ায় শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে বেতন আদায় করতে পারছে না স্কুলগুলোর কর্তৃপক্ষ। ফলে তাদের না খেয়ে থাকার দশা হয়েছে। এ অবস্থায় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আর্থিক সহায়তা কামনা করে নড়াইলে কিন্ডার গার্টেন স্কুলের শিক্ষক-কর্মচারীরা মানববন্ধন করেছেন।
বৃহস্পতিবার বেলা ১১ টায় নড়াইল প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ কিন্ডার গার্টেন স্কুল এন্ড কলেজ ঐক্য পরিষদ, নড়াইল জেলা শাখার আয়োজনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য রাখেন নড়াইল জেলা কিন্ডার গার্টেন অ্যাসোসিয়েশনের সহ-সভাপতি মো. সামিউল আলম জিহাদ,
নড়াইল জেলা কিন্ডার গার্টেন অ্যাসোসিয়েশনের সাধারন সম্পাদক মো. আসলাম খান, অধ্যক্ষ নিয়াজ মাহফুজ খান টিটো, মতিয়ার রহমান।

পঞ্চগড়ে কিন্ডারগার্টেনের শিক্ষকরা করোনাকালীন প্রণোদনাসহ বিভিন্ন দাবিতে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন

পঞ্চগড় প্রতিনিধি জানান, পঞ্চগড়ে কিন্ডারগার্টেনের শিক্ষকরা করোনাকালীন প্রণোদনাসহ বিভিন্ন দাবিতে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছেন। বুধবার তারা পঞ্চগড় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে এই অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন। বাংলাদেশ কিন্ডারগার্টেন অ্যাসোসিয়েশন পঞ্চগড়ের আয়োজনে ঘণ্টাব্যাপী অবস্থান কর্মসূচিতে দাবি দাওয়া সম্বলিত বিভিন্ন ব্যানার ফেস্টুন নিয়ে জেলার বিভিন্ন এলাকার কিন্ডারগার্টেনে কর্মরত শিক্ষকরা অংশ নেন।

এ সময় বাংলাদেশ কিন্ডার গার্টেন অ্যাসোসিয়েশন পঞ্চগড় জেলার সভাপতি জিল্লুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক দিলিপ কুমার সরকার, পঞ্চগড় কিন্ডারগার্টেন সোসাইটির সভাপতি সোয়েব আলী সবুজ, সৃজন একাডেমি পঞ্চগড়ের অধ্যক্ষ জাহাঙ্গীর আলম বক্তব্য রাখেন।
বক্তারা জানান, করোনায় অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মতো কিন্ডার গার্টেন স্কুলগুলো বন্ধ রয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ থাকায় প্রতিষ্ঠানগুলোরও আয়ও বন্ধ হয়ে গেছে। তাই তারা শিক্ষকদের বেতন ভাতা দিতে পারছেন না। এতে পঞ্চগড়ের ৯০টি কিন্ডারগার্টেন প্রতিষ্ঠানের ৯শতাধিক শিক্ষক দুর্ভোগে পড়েছেন। তারা মানবেতর জীবন যাপন করছেন। এজন্য তারা করোনাকালীন সরকারি প্রণোদনা ও সহজ শর্তে ঋণ সুবিধাসহ ১০ দফা দাবি জানান। অবস্থান কর্মসূচি শেষে তারা পঞ্চগড় জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে একটি স্মারকলিপি প্রদান করেন।

 





সম্পূর্ণ রিপোর্টটি প্রথম আলোতে পড়ুন

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More