‘দুই গ্রুপের গোলাগুলি’, সন্ত্রাসী গুরাপুতুর লাশ উদ্ধার

বন্দুকযুদ্ধকক্সবাজারে চিহ্নিত সন্ত্রাসী সৈয়দ আহমদ ওরফে গুরাপুতুর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার (১০ জুলাই) সকালে কক্সবাজার শহরের কবিতা চত্বর এলাকা থেকে তার গুলিবিদ্ধ মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। দুই গ্রুপের গোলাগুলিতে গুরাপুতু নিহত হয় বলে পুলিশ দাবি করেছে। ঘটনাস্থল থেকে ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধার কার কথাও জানিয়েছে তারা।

নিহত গুরাপুতু কক্সবাজার শহরের ইসুলুঘোনা এলাকার সাব্বির আহমেদের ছেলে। তার বিরুদ্ধে হত্যা, ধর্ষণসহ বিভিন্ন ধরনের অপরাধের অভিযোগে অন্তত সাতটি মামলা রয়েছে। শুক্রবার দুপুর ১টার দিকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কক্সবাজার সদর মডেল থানার অপারেশন অফিসার মো. মাসুম খান।

এই কর্মকর্তা জানান,  শুক্রবার ভোররাতে ইয়াবার বিরোধ নিয়ে দুই গ্রুপের মধ্যে গোলাগুলির খবর পেয়ে সদর থানা পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে। এসময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থলে তল্লাশি করে একটি দেশীয় পিস্তল, দুটি কার্তুজ ও ২শ’ পিস ইয়াবাসহ গুলিবিদ্ধ অবস্থায় সৈয়দ আহমদ ওরফে গুরাপুতুকে উদ্ধার করা হয়। পরে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মাসুম খান আরও জানান, ‘নিহত গুরাপুতু কক্সবাজার শহরের শীর্ষ সন্ত্রাসী। তার বিরুদ্ধে কক্সবাজার সদর মডেল থানায় হত্যা, ধর্ষণ, সন্ত্রাসসহ বিভিন্ন অপরাধে সাতটি মামলা রয়েছে। তার মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার মর্গে রয়েছে। এব্যাপারে সংশ্লিষ্ট আইনে মামলা রুজু করা হয়েছে।’

 





সম্পূর্ণ রিপোর্টটি প্রথম আলোতে পড়ুন

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: