করোনামুক্ত হওয়ার চার দিন পর ইউপি চেয়ারম্যানের মৃত্যু

শাহজাহান মিয়া।ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে করোনাভাইরাস থেকে মুক্ত হওয়ার প্রতিবেদন পাওয়ার চার দিন পর চুন্টা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান শাহজাহান মিয়ার (৬৮) মৃত্যু হয়েছে। গতকাল শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে তিনি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান।

উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে, কোভিড-১৯ রোগের উপসর্গ দেখা দেওয়ায় শাহজাহান মিয়া গত ১০ জুন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নমুনা দেন। ১৪ জুন প্রতিবেদনে তাঁর করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এরপর তিনি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন। গত সোমবার তাঁর নমুনা পরীক্ষার ফলাফলে করোনাভাইরাস নেগেটিভ আসে। ওই দিন তাঁকে করোনামুক্ত ঘোষণা করা হলেও তিনি শারীরিকভাবে পুরোপুরি সুস্থ হননি। আজ শুক্রবার তিনি মারা যান।

শাহজাহানের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, সর্বশেষ গত বুধবার দ্বিতীয়বার নমুনা সংগ্রহ করা হয়। শাহজাহানের মৃত্যুর পর আজ বেলা ১১টার দিকে ফলাফল পান পরিবারের সদস্যরা। এটিতেও নেগেটিভ এসেছে। তিনি স্ত্রী ও তিন মেয়ে রেখে গেছেন। তিনি ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য। তিনি ১৯৯৬ সালে প্রথম চুন্টা ইউপির চেয়ারম্যান ও ২০০৯ সালে উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। তিনি ২০১২ সালে নভেম্বর মাস থেকে আট মাস উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের দায়িত্বও পালন করেন। সর্বশেষে তিনি ২০১৬ সালে চুন্টা ইউপির চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। মৃত্যুর আগপর্যন্ত তিনি এ পদে বহাল ছিলেন। 

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) ও করোনাভাইরাসের নমুনা সংগ্রহ, নমুনা পাঠানো ও নমুনার ফল সংরক্ষণের দায়িত্বে থাকা আনাস ইবনে মালেক প্রথম আলোকে বলেন, ‘সরাইল উপজেলায় গত ৮ এপ্রিল থেকে গত মঙ্গলবার পর্যন্ত ৬৭২ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ৬৪০ জনের ফলাফল আমরা পেয়েছি। সরাইল উপজেলায় এখন পর্যন্ত দুজন স্টাফ নার্স, দুজন স্বাস্থ্যকর্মীসহ ৯৭ জন কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হয়েছেন। এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৪০ জন।’





সম্পূর্ণ রিপোর্টটি প্রথম আলোতে পড়ুন

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: