বিকাশ দুবের এনকাউন্টার রহস্য ঘনীভূত করছে ভিডিও

ভারতীয় পুলিশের দাবি সড়ক দুর্ঘটনার পর পালানোর চেষ্টা করলে এনকাউন্টারে নিহত হয়েছে উত্তর প্রদেশে আট পুলিশ হত্যায় অভিযুক্ত গ্যাংস্টার বিকাশ দুবে। তবে শুক্রবার ভোরের ওই ঘটনার পর বেশ কয়েকটি ভিডিও সামনে আসায় পুলিশের দাবি নিয়ে রহস্য ঘনীভূত হচ্ছে। ভারতের সম্প্রচারমাধ্যম এনডিটিভি বলছে, এসব ভিডিও পুলিশের বক্তব্য সমর্থন করছে না।পুলিশের দাবি সড়ক দুর্ঘটনার পর পালানোর চেষ্টা করে বিকাশ দুবে

বৃহস্পতিবার সকালে মধ্য প্রদেশের উজ্জয়ীনীতে মহাকাল মন্দির থেকে বিকাশ দুবেকে গ্রেফতার করা হয়। মধ্য প্রদেশ পুলিশ ওই দিন সন্ধ্যায় তাকে তুলে দেয় উত্তর প্রদেশ পুলিশের বিশেষ বাহিনী এসটিএফের হাতে।  উজ্জয়ীনী থেকে বিকাশকে নিয়ে উত্তর প্রদেশের শিবলির উদ্দেশে রওনা হয় পুলিশের একটি দল।

পুলিশের দাবি শুক্রবার সকালে কানপুরের কাছে এসে বিকাশ দুবেকে বহন করা গাড়ি উল্টে গেলে সে এবং পুলিশ সদস্যরা আহত হয়। ওই অবস্থায় পুলিশের পিস্তল কেড়ে নিয়ে পালানোর চেষ্টা করে। পরে তাকে ঘিরে ফেলে আত্মসমর্পণ করতে বললেও সে গুলি চালানো শুরু করে। তখন পুলিশের পাল্টা গুলিতে সে নিহত হয় বলে জানিয়েছে পুলিশ।

তবে ভোর চারটার দিকে একটি টোল বুথে ধারণ করা ভিডিওতে দেখা গেছে, বিকাশ দুবেকে নিয়ে ওই স্থান পার হচ্ছে পুলিশের তিনটি গাড়ির একটি কনভয়। আর রাস্তায় যে গাড়িটি উল্টে যায় সে গাড়িতে ছিল না বিকাশ দুবে। তবে রাস্তায় অন্য কোথাও তার গাড়ি বদল করা হয়েছিল কিনা তা নিয়ে এখনো কোনও মন্তব্য করেনি পুলিশ।

এছাড়া এনকাউন্টারের মাত্র আধাঘণ্টা আগে সকাল সাড়ে ছয়টায় ধারণ করা আরেকটি ভিডিওতে দেখা গেছে বিকাশ দুবেকে বহনকারী পুলিশ কনভয়কে অনুসরণ করা সংবাদমাধ্যমের গাড়িগুলো আটকে দেওয়া হয়েছে।

এক প্রত্যক্ষদর্শী জানিয়েছেন, ওই এলাকায় তিনি বন্দুকের গুলির শব্দ শুনেছেন। তবে পুলিশ তাদের সরিয়ে দেয়। আশীষ পাসওয়ান নামের ওই পথচারী বার্তা সংস্থা এএনআইকে বলেন, ‘আমরা এখানে যে শব্দ শুনেছি তা গুলির শব্দ… আমরা যখন দেখতে যাচ্ছিলাম তখন পুলিশ আমাদের ফেরত পাঠিয়ে দেয়। পরে আমরা বাড়ি চলে আসি।’

অবশ্য অনেকেই আশঙ্কা করছিলেন বিকাশ দুবেকে পুলিশ হেফাজতে হত্যা করা হতে পারে। আগের রাতে সুপ্রিম কোর্টে দাখিল করা এক পিটিশনে বিকাশের সুরক্ষা নিশ্চিতের আহ্বান জানানো হয়।

আর শুক্রবার সকালে এনকাউন্টারে বিকাশ দুবে নিহত হওয়ার পর অনেকেই এই ঘটনায় সিবিআই তদন্তের দাবি তুলেছেন।





আরও পড়ূন বাংলা ট্রিবিউনে

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: