ইতালি থেকে ফিরিয়ে দেওয়া ১৪৭ জন প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে

হজ ক্যাম্প

ইতালির বিমানবন্দর থেকে ফিরিয়ে দেওয়া ১৪৭ জন বাংলাদেশিকে রাজধানীর আশকোনায় অবস্থিত হজ ক্যাম্পে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে। শুক্রবার (১০ জুলাই) ভোর রাতে তারা কাতার এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইটে ঢাকায় আসেন।

বিমানবন্দর সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার ভোর রাতে ইতালি ফেরত যাত্রীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়। তবে কারও শরীরে করোনাভাইরাস সংক্রমণের উপসর্গ পাওয়া যায়নি।

বিমানবন্দর স্বাস্থ্যকেন্দ্রের কর্মকর্তা ডা. শাহরিয়ার সাজ্জাদ জানান, ইতালি থেকে যারা রাতে এসেছেন, সবাইকে স্ক্রিনিং করা হয়েছে। এরপর তাদের সবাইকে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বৃহস্পতিবার (৯ জুলাই) ইতালিতে প্রবেশ করতে না পারা ব্যক্তিরা দেশে ফিরলে তাদের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে রাখার নির্দেশ দেয়। মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব মো. যাহিদ হোসেন স্বাক্ষরিত চিঠিতে বলা হয়, ‘ইতালি থেকে কাতার এয়ারওয়েজের একটি বিশেষ ফ্লাইট ১৫১ জন বাংলাদেশি নাগরিককে নিয়ে ৯ জুলাই দিবাগত রাতে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করবে। বাংলাদেশে ফেরত আসা ব্যক্তিদের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে রাখার ব্যবস্থা করা এবং তাদের কোভিড-১৯ পরীক্ষা করে রিপোর্ট অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করতে নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো।’

প্রসঙ্গত, ৬ জুলাই বাংলাদেশ থেকে রোমে যাওয়া একটি ফ্লাইটের উল্লেখযোগ্য সংখ্যক যাত্রীর শরীরে করোনা শনাক্ত হয়। এরপর বাংলাদেশের সঙ্গে সব ধরনের ফ্লাইট বাতিলের ঘোষণা দেয় ইতালি। এ ঘোষণার পরও ৮ জুন বাংলাদেশ থেকে কাতার হয়ে ইতালিতে যাওয়া দুটি ফ্লাইটের ১৬৮ বাংলাদেশিকে ফিরিয়ে দেয় ইতালি। বাংলাদেশ থেকে যাওয়া যাত্রীর শরীরে করোনাভাইরাস পাওয়ায় প্রথমে এক সপ্তাহের জন্য বাংলাদেশের সঙ্গে ফ্লাইট বাতিল করে ইতালি। তবে পরে এই সময়সীমা আগামী ৫ অক্টোবর পর্যন্ত বাড়িয়েছে দেশটি। বুধবার (৮ জুলাই) রাতে এ সংক্রান্ত নোটাম (নোটিস টু এয়ারম্যান) জারি করে ইতালির সিভিল এভিয়েশন।

 





সম্পূর্ণ রিপোর্টটি প্রথম আলোতে পড়ুন

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: