খালেদার বিদেশে চিকিৎসাই এখন বেশি প্রয়োজন: ফখরুল

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ফাইল ছবিবিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার চিকিৎসা প্রসঙ্গে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, বিদেশে না যাওয়ার জন্য খালেদা জিয়াকে শর্ত দেওয়া হয়েছে। কিন্তু তাঁর বিদেশে চিকিৎসাই এখন বেশি প্রয়োজন।

আজ শুক্রবার ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দলের চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য খন্দকার আবদুল মুক্তাদিরের উদ্যোগে সদ্য প্রয়াত এম এ হকের স্মরণে ‘এম এ হক স্বাস্থ্যসেবা কর্মসূচি’ উদ্বোধনকালে এসব কথা বলেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

৩ জুলাই চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য সিলেট জেলার সাবেক সভাপতি এম এ হক মারা যান।
মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘আপনারা সবাই জানেন, আমাদের দেশনেত্রী খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় সাজা দিয়ে তাঁকে আটক করে রাখা হয়েছে। মাত্র ছয় মাস স্থগিত করে তাঁকে বাসায় রাখা হয়েছে। সেখানে তাঁকে বলা হয়েছে যে তিনি চিকিৎসার জন্য বিদেশে যেতে পারবেন না। অথচ তাঁর চিকিৎসাটাই এখন বিদেশে সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন।’

সরকারের দোষেই করোনা পরিস্থিতি সারা দেশে ছড়িয়েছে অভিযোগ করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘সরকারের চরম অবহেলা, অবজ্ঞা, অজ্ঞানতা এবং তাদের যে একটাই লক্ষ্য চুরি, সে কারণেই আজকে করোনা পরিস্থিতি এ অবস্থায় দাঁড়িয়েছে, সারা দেশে ছড়িয়ে পড়েছে।’

হজ ক্যাম্পে আইসোলেশনে থাকা প্রবাসীদের প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, সরকারের বলছে, বিদেশ থেকে যাঁরা ফেরত আসছেন, তাঁদের স্ক্যানিং যে টেস্ট, সেই টেস্টে সবাই তাঁরা করোনামুক্ত। অথচ বিদেশফেরতরাই বলছেন যে তাঁদের কোনো স্ক্যানিংই হয়নি। তিনি বলেন, ‘কতটা দায়িত্বহীন হতে পারে এই স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা, কতটা উদাসীন হতে পারে সরকার। এত ঘটনার পরেও এই হাজার হাজার মানুষ মৃত্যুবরণ করার পরে, লাখা লাখ লোক আক্রান্ত হওয়ার পরে যখন একেবারে জীবন-জীবিকা সবকিছু ওলোট-পালট হয়ে যাচ্ছে, সেই সময়েও তারা তাদের ন্যূনতম যে দায়িত্ব, সেটা পালন করছে না।’
সরকারের দিকে না তাকিয়ে নিজেদেরই বাঁচার চেষ্টা করতে হবে বলে জানান বিএনপি মহাসচিব।

ভুয়া করোনা টেস্ট প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘আজকে সারা বিশ্বে ইতিমধ্যে আলোচনা শুরু হয়েছে, এটা অলরেডি গ্লোভাল মিডিয়াতে চলে গেছে—এখন বাংলাদেশ থেকে কোনো মানুষের বিদেশে যাওয়া অথবা বাংলাদেশের ট্রেড যেটা, তার জন্য যে ব্যবস্থা; এমনকি বাংলাদেশের যাঁরা যেতে পারছেন, তাঁরাও আর যেতে পারবেন না। সব এয়ারলাইনস বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে। এটা বড় রকমের একটা অ্যাডভান্স ইমপ্যাক্ট ইকোনমিতেও পড়বে।’ এর দায় সরকারের বলেও জানান তিনি।

দেশের বর্তমান পরিস্থিতি থেকে মুক্তির জন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান বিএনপি মহাসচিব।





সম্পূর্ণ রিপোর্টটি প্রথম আলোতে পড়ুন

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: