বাসের ধাক্কায় অটোরিকশার তিন যাত্রীর প্রাণ নেই

প্রতীকী ছবিরাজশাহীতে যাত্রীবাহী বাসের ধাক্কায় ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার তিনজন যাত্রী নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও দুজন। গতকাল শুক্রবার রাত সাড়ে আটটার দিকে নগরের বোয়ালিয়া থানাধীন আলিফ-লাম-মীম ভাটা এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত ব্যক্তিরা হলেন পবা উপজেলার বায়া বাজার এলাকার সানা মিয়ার ছেলে উজ্জ্বল (৪৫) ও রাজশাহী নগরের মো. শরিফ (২২)। নিহত আরেকজনের পরিচয় এখনো নিশ্চিত হতে পারেনি পুলিশ।

দুর্ঘটনায় আহত হয়ে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দুজন চিকিৎসা নিচ্ছেন। তাঁরা হলেন পবার আনোয়ার হোসেনের ছেলে জুয়েল (৩০) ও নাটোরের সিংড়া উপজেলার জোবায়েরের ছেলে সিদ্দিক (২৫)।

প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে নগরের বোয়ালিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নিবারণ চন্দ্র বর্মণ বলেন, রাতে নগরের নওদপাড়া বাস টার্মিনাল থেকে বাঁধন পরিবহনের একটি বাস চাঁপাইনবাবগঞ্জের উদ্দেশে ছেড়ে আসে। পথে রাজশাহী-নওগাঁ মহাসড়কে আলিফ-লাম-মীম ভাটার কাছে বাসটি বিপরীত দিক থেকে আসা একটি অটোরিকশাকে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান দুজন। আরেকজন রাতে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

ওসি বলেন, দুর্ঘটনার পর বাসটি পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। প্রধান সড়ক ছেড়ে বাসটি গলিপথে ঢুকে পড়ে। এরপর চন্দ্রিমা থানার খোরশেদের মোড়ে গিয়ে বাসটি আর পালাতে পারেনি। স্থানীয় লোকজন বাসটি ধরে ফেলেন। বাসের চালককে ধরে চন্দ্রিমা থানার পুলিশের কাছে দেওয়া হয়। চালকের নাম নূর ইসলাম। পরে তাঁকে বোয়ালিয়া থানায় আনা হয়।

ময়নাতদন্তের জন্য লাশ মর্গে রয়েছে। এ ঘটনায় রাতেই মামলা করেছে পুলিশ।





সম্পূর্ণ রিপোর্টটি প্রথম আলোতে পড়ুন

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: