ব্রডের রাগ অ্যান্ডারসনের কাছে ‘ইতিবাচক’

তার দাবি, গত দুই বছর নিজের সেরা বোলিং করে আসছেন। পরিসংখ্যানও সায় দিচ্ছে স্টুয়ার্ট ব্রডের বক্তব্যের। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম টেস্টের একাদশে জায়গা না পেয়ে হতাশাটা সে কারণে তার আরও বেশি। লম্বা সময় পর মাঠে ক্রিকেট ফিরছে, মনে উত্তেজনার ঢেউ খেলে গেলেও ‘নিয়মিত’ ব্রড পড়লেন বাদ। রাগ উগড়েও দিলেন এই পেসার। তাতে অবশ্য দলে বিভেদ নয়, বরং ইতিবাচক দিকই খুঁজে পাচ্ছেন ব্রডের দীর্ঘদিনের বোলিং সঙ্গী জেমস অ্যান্ডারসন।

সাউদাম্পটনে চলছে ইংল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রথম টেস্ট। করোনাভাইরাস বিরতির পর এই টেস্ট দিয়েই ফিরেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট। এই ম্যাচে অভিজ্ঞ ব্রডের জায়গা না পাওয়াটা অনেকের চোখে ভালো লাগেনি। যদিও অ্যান্ডারসনের মতে, এতে স্পষ্ট হয়েছে ইংলিশ বোলিং আক্রমণের গভীরতা। তাছাড়া ব্রডের ক্ষোভ প্রমাণ করে দিচ্ছে তিনি একাদশে থাকতে কতটা মরিয়া।

শুক্রবার তৃতীয় দিনের খেলা শেষে অ্যান্ডারসন বলেছেন, ‘ও (ব্রড) বাদ পড়ায় হতাশ ও ক্ষুব্ধ, তবে এটাতে স্পষ্ট বোঝা যায় আমাদের বোলিং লাইনআপ কতটা শক্তিশালী। বাদ পড়ে ব্রডের হতাশা বরং এই কারণে ইংল্যান্ডের জন্য ভালো ব্যাপার।’

সঙ্গে ইংল্যান্ডের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি যোগ করলেন, ‘ব্রড দলের সঙ্গে থাকতে এবং আমাদের সাফল্যের সঙ্গী হতে মরিয়া। যেটা আমাদের পুরো দলের জন্য ইতিবাচক ব্যাপার।’

সাউদাম্পটন টেস্ট থেকে বাদ পড়ে নির্বাচকদের সিদ্ধান্ত বুঝতে কষ্ট হয়েছে ব্রডের। ডানহাতি পেসার নিজের সব রাগ-ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছিলেন স্কাই স্পোর্টসে দেওয়া সাক্ষাৎকারে, ‘গত দুই দিন আমার কাছে ভীষণ কষ্টের মনে হয়েছে। আমি যদি বলি হতাশ, সেটি কম বলা হবে। আমি হতাশ, ক্ষুব্ধ এবং বঞ্চিত বোধ করছি- কারণ এটা এমন একটা সিদ্ধান্ত যা বোঝা কঠিন। গত দুই বছর ধরে সম্ভবত আমি আমার সেরা বোলিংটা করে আসছি।’





আরও পড়ূন বাংলা ট্রিবিউনে

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: