বাক্য’র সদস্যদের জামানত ছাড়াই ঋণ দিবে আইপিডিসি


বিজনেস প্রসেস আউটসোর্সিং (বিপিও) শিল্প খাতে ক্ষুদ্র, ছোট ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের (এমএসএমই) অর্থনৈতিক দিক দিয়ে সহযোগিতা করার জন্য বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব কল সেন্টার অ্যান্ড আউটসোর্সিংয়ের (বাক্য) সদস্যদের জামানত ছাড়াই ঋণ প্রদান করবে আইপিডিসি ফাইন্যান্স লিমিটেড।

আজ রবিবার ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আইপিডিসির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও মমিনুল ইসলাম এবং বাক্কো’র সভাপতি ওয়াহিদুর রহমান শরীফ আনুষ্ঠানিকভাবে এই সহযোগিতামূলক উদ্যোগটি উদ্বোধন করেন।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক। তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন, “দেশের এই সংকটকালে দেশের ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের (এমএসএমই) টিকে থাকার পাশাপাশি দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের ক্ষেত্রে আইটি সেক্টরের জন্য চমকৎকার একটি উপহার নিয়ে এসেছে আইপিডিসি। যার মাধ্যমে নতুন উদ্যোক্তারা সহজেই অর্থের সরবরাহ, টার্ম লোন গ্রহণ করতে পারবে। করোনা পরবর্তী সময়েও আইপিডিসি এর সহযোগিতা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। এছাড়াও আইপিডিসির মাধ্যমে বিপিও খাতের উদ্যোক্তাদের সাথে আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর দূরত্বটা অনেকটা দূর হয়ে গেল।”

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, আইপিডিসির ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও হেড অব বিজনেস ফাইন্যান্স রিজওয়ান দাউদ শামস, আইপিডিসির হেড অব আইটি অ্যান্ড বিজনেস ট্রান্সফরমেশন আলেয়া আর. ইকবাল, বাক্কো’র সহ-সভাপতি তানভীর ইব্রাহিম এবং সাধারণ সম্পাদক তৌহিদ হোসেন।

এই অংশীদারিত্বের মাধ্যমে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের (এসএমই) উদ্যোক্তারা সহজেই টার্ম লোন ও লিজ ফাইন্যান্স ও জয়ী (মহিলা উদ্যোক্তা ঋণ) উপভোগ করতে পারবেন। এছাড়াও বিভিন্ন ছাড়ের মাধ্যমে প্রসেসিং ফি ও সীমিত সুদে ঋণ গ্রহণ করতে পারবে বাক্য’র সদস্যরা। বাক্কো’র সদস্যরা যাতে বাসায় বা অফিসে বসেই ঋণ আবদেনসহ যাবতীয় সেবা পেতে পারে, সেজন্য আইপিডিসি রিলেশনশিপ ম্যানজোর নিয়োগ করেছে।

নিজেদের সাপ্লাই চেইন ফাইন্যান্সিং ব্যবস্থাপনাকে শক্তিশালী করার জন্য জামানতবিহীন, ছাড়যুক্ত প্রক্রিয়া ফি ও সীমিত হারে সুদ সুবিধাসহ ওয়ার্ক অর্ডার ফাইন্যান্স ও ফ্যাক্টরিং-এর মত অর্থায়ন সুবিধা পাবেন বাক্কো’র সদস্যরা। সদস্যদের জন্য ওয়ার্কিং ক্যাপিটাল সাপোর্ট ও অন্যান্য অর্থায়ন সুবিধার জন্য ইনভয়েস অর্থায়ন প্রদানের মাধ্যমে আইপিডিসি’র নগদ অর্থ প্রবাহ ও দক্ষতা আরও উন্নত করতে যাবতীয় কার্যক্রম পরিচালনা করবে সাপ্লাই চেইন ম্যানেজমেন্ট। বাক্কো’র সদস্যদের সদস্যদের জন্য অর্থায়ন প্রক্রিয়াটি ডিজিটাইজ করতে ব্লক চেইন প্ল্যাটফর্ম ও আইপিডিসির অন্যান্য ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম বাস্তবায়নে বাক্কো এবং আইপিডিসি একসাথে কাজ করে যাবে।

এই চুক্তির অধীনে, বাক্কো’র সদস্যরা যে কোন সময় আইপিডিসির কার্ড রেটের চেয়ে বেশি সুদে এফডিআর, ডিপিএস ও সকল ধরণের ডিপোজিট স্কিমসহ বিভিন্ন ডিপোজিট পণ্য উপভোগ করতে পারবেন। ফলে বাক্য’র সদস্যরা চ্যালেঞ্জিং সময়ে তাদের বিনিয়োগের উপর অনেক বেশি রিটার্ন পাবেন। এ কারণে ভবিষ্যতের জন্য সকলের সঞ্চয় শুরু করা অত্যাবশ্যকীয়।

আইপিডিসির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও মমিনুল ইসলাম বলেন, “বিশ্বের অর্থনীতিতে বিপিও শিল্প খাতের যে সম্ভাবনা রয়েছে তা সম্পর্কে পুরোপুরি অবহিত আইপিডিসি। আমরা বাক্কো’র সদস্যদের জন্য গ্রাহককেন্দ্রিক ও ঝামেলামুক্ত আর্থিক সমাধান প্রদান করে তাদের ব্যবসাকে আরও ত্বরান্বিত করার লক্ষ্যে বাক্য’র সাথে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছি। এছাড়া সরকারের স্বপ্নের ডিজিটাল বাংলাদেশের গড়ার লক্ষ্যে আইপিডিসি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। এজন্য আমরা সবসময় বাক্য ও আইটি সেক্টরের সাথে ঘনিষ্ঠ ও বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রাখবো।”

এই ধরনের কোলাবোরেশন এর জন্য আইপিডিসি ফাইন্যান্সকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে বাক্য সভাপতি ওয়াহিদ শরীফ বলেন, “বাক্য সবসময়ই সদস্য প্রতিষ্ঠানগুলোর সুযোগসুবিধা বৃদ্ধিতে কাজ করে আসছে । তবে বর্তমান পরিস্থিতিতে সদস্য প্রতিষ্ঠানগুলোকে বিশেষ ফাইন্যান্সিং সুবিধা দিতেই এই ধরনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে এবং ভবিষ্যতেও এইরকম আরও কিছু কার্যক্রম গ্রহনের মাধ্যমে বিপিও শিল্পের প্রতিষ্ঠানগুলোকে বিশেষায়িত অর্থায়ন সুবিধা দিতে কাজ করে যাবে বাক্য।



আরও পড়ুন Techzoom এ

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: