উত্তরে ৩, দক্ষিণে ৫ হাট চূড়ান্ত

করোনা পরিস্থিতির মধ্যেও এবছর কোরবানি উপলক্ষ্যে রাজধানী ঢাকায় ২টি স্থায়ী হাটসহ ২৬ অস্থায়ী কোরবানির পশুর হাট বসানোর সিদ্ধান্ত নেয় দুই সিটি করপোরেশন। এরইমধ্যে দুই দফা দরপত্র আহ্বান শেষে ৫টি পশুর হাট চূড়ান্ত করেছে দক্ষিণ সিটি করপোরেশন। আর উত্তর সিটি করপোরেশন করেছে ৩টি। সংস্থাটি আরও তিনটি হাট বাতিল করেছে। বাকি হাটগুলোর বিষয়ে তৃতীয় দফায় টেন্ডার আহ্বান করা হয়েছে।

ডিএসসিসির সম্পত্তি বিভাগ সূত্রে জানা যায়, এবার দক্ষিণে ১৪টি অস্থায়ী হাট বসানো হবে। আর পশু বেচাবিক্রির একটি স্থায়ী হাট রয়েছে। এটি হচ্ছে- সারুলিয়া পশুর হাট। এছাড়া ১৪টি অস্থায়ী হাট হলো- উত্তর শাহজাহানপুর খিলগাঁও রেলগেট বাজারের মৈত্রী সংঘ মাঠ, হাজারীবাগের ইনস্টিটিউট অব লেদার টেকনোলজি মাঠসংলগ্ন উন্মুক্ত এলাকা, কামরাঙ্গীর চরের ইসলাম চেয়ারম্যানবাড়ির মোড় থেকে বুড়িগঙ্গার বাঁধ, পোস্তগোলা শ্মশানঘাট, শ্যামপুর বালুর মাঠ, মেরাদিয়া বাজার, আরমানিটোলা মাঠ, লিটল ফ্রেন্ডস ক্লাবসংলগ্ন গোপীবাগ বালুর মাঠ ও কমলাপুর স্টেডিয়ামসংলগ্ন বিশ্বরোড, দনিয়া কলেজ মাঠসংলগ্ন খালি জায়গা, ধূপখোলা মাঠ, সাদেক হোসেন খোকা মাঠের পাশে ধোলাইখাল ট্রাক টার্মিনাল, ডিএসসিসির আফতাবনগরের (ইস্টার্ন হাউজিং) ব্লক ই, এফ, জি ও এইচ এবং সেকশন-১ ও ২, আমুলিয়া মডেল টাউন এবং লালবাগের রহমতগঞ্জ খেলার মাঠ। এগুলো ইজারা দেওয়ার জন্য গত ১৪ জুন দরপত্র আহ্বান করে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়।

প্রথম দফায় ২৮ জুন টেন্ডার খোলা হয়। তখন ৩টি হাট চূড়ান্ত করা হয়। বাকি হাটগুলো আবারও টেন্ডারের জন্য আহ্বান করা হয়। তার দরপত্র খোলা হয় ৮ জুন। এ দফায় হাট মূল্যায় কমিটি আরও দুটি হাট ইজারা দেওয়ার জন্য সিদ্ধান্ত নেয়। এই হাটগুলো হচ্ছে- উত্তর শাহজাহানপুর খিলগাঁও রেলগেট বাজারের মৈত্রী সংঘ মাঠ, হাজারীবাগের ইনস্টিটিউট অব লেদার টেকনোলজি মাঠসংলগ্ন উন্মুক্ত এলাকা, পোস্তগোলা শ্মশানঘাট সংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা, লিটল ফ্রেন্ডস ক্লাবসংলগ্ন গোপীবাগ বালুর মাঠ ও কমলাপুর স্টেডিয়ামসংলগ্ন বিশ্বরোড এবং ডিএসসিসির আফতাবনগরের (ইস্টার্ন হাউজিং) ব্লক ই, এফ, জি ও এইচ এবং সেকশন-১ ও ২, আমুলিয়া মডেল টাউন এবং লালবাগের রহমতগঞ্জ খেলার মাঠ। বাকি হাটগুলো তৃতীয় দফায় টেন্ডার আহ্বান করা হবে। এই দফায় দরপত্র খোলা হবে আগামী ১৯ জুন।

অন্যদিকে ডিএনসিসি এলাকায় ১০টি অস্থায়ী কোরবানি পশুর হাট বসানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে। এগুলো হচ্ছে- উত্তরা ১৫ নম্বর সেক্টরের ১ নম্বর ব্রিজের পশ্চিমের অংশ এবং ২ নম্বর ব্রিজের পশ্চিমে গোলচত্বর পর্যন্ত সড়কের ফাঁকা জায়গা, ভাটারা (সাঈদনগর) পশুর হাট, ঢাকা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের খেলার মাঠ, বাড্ডা ইস্টার্ন হাউজিং (আফতাব নগর) ব্লক-ই, সেকশন ৩-এর খালি জায়গা, মোহাম্মদপুর বুদ্ধিজীবী সড়কসংলগ্ন (বছিলা) পুলিশ লাইন, মিরপুর সেকশন ৬ ওয়ার্ড ৬ (ইস্টার্ন হাউজিং), উত্তরা ১৭ নম্বর সেক্টরে বৃন্দাবন থেকে উত্তর দিকে বিজিএমইএ পর্যন্ত, কাওলা শিয়ালডাঙ্গা সংলগ্ন খালি জায়গা এবং ৪৩নং ওয়ার্ডের পূর্বাচল ব্রিজসংলগ্ন মস্তুল ডুমনী বাজারমুখী রাস্তার উভয় পাশ। আর গাবতলীতে বসবে স্থায়ী হাট।

উত্তরা ১৫ নম্বর সেক্টরের ১ নম্বর ব্রিজের পশ্চিমের অংশ এবং ২ নম্বর ব্রিজের পশ্চিমে গোলচত্বর পর্যন্ত সড়কের ফাঁকা জায়গা, ঢাকা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের খেলার মাঠ ও ঢাকা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের খেলার মাঠ ইজারা দেওয়া থেকে সরে আসে ডিএনসিসি। এই হাটগুলো বাতিল করে গত দুই জুন একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। বাকি হাটগুলোর মধ্যে- উত্তরা ১৭ নম্বর সেক্টরে বৃন্দাবন থেকে উত্তর দিকে বিজিএমইএ পর্যন্ত, কাওলা শিয়ালডাঙ্গা সংলগ্ন খালি জায়গা ও ৪৩ নং ওয়ার্ডের পূর্বাচল ব্রিজসংলগ্ন মস্তুল ডুমনী বাজারমুখী রাস্তার উভয় পাশ হাট ইজারা দেওয়ার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়েছ বলে জানিয়েছেন ডিএনসিসির জনসংযোগ কর্মকর্তা এএসএম মামুন। বাকি হাটগুলো ফের টেন্ডারের জন্য রাখা হয়েছে।

জানতে চাইলে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শাহ মো. এমদাদুল হক বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আমরা এখন পর্যন্ত ৫টি হাট চূড়ান্ত করেছি। বাকিহাটগুলো ইজারা দেওয়ার জন্য তৃতীয় দফায় দরপত্র আহ্বান করা হবে। এখন পর্যন্ত কোনও হাট বাতিল করার সিদ্ধান্ত হয়। আমাদের পূর্ব নির্ধারিত তৃতীয় দফায় হাটের দরপত্র খোলা হবে আগামী ১৯ জুলাই।’

 





সম্পূর্ণ রিপোর্টটি প্রথম আলোতে পড়ুন

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: