রাজস্ব ফাঁকির দায়ে ৩ কাস্টমস কর্মকর্তা বরখাস্ত

বেনাপোল কাস্টম হাউসবেনাপোল বন্দরে ৩০ লাখ টাকা রাজস্ব ফাঁকির দায়ে কাস্টমসের তিন কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে। রবিবার (১২ জুলাই) তাদের বরখাস্তের পাশাপাশি বাতিল করা হয়েছে দুটি সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট লাইসেন্স। বেনাপোল কাস্টমস হাউসের অতিরিক্ত কমিশনার ড. নেয়ামুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

কাস্টমস সূত্রে জানা যায়, ঢাকার আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান মেসার্স আলহামদুলিল্লাহ এন্টারপ্রাইজ ভারত থেকে ৬৬৫ প্যাকেজ মোটর পার্টসসহ বিভিন্ন পণ্য আমদানি করে। চালানটি আমদানি হওয়ার পর কাস্টমসের কাছে সংবাদ আসে চালানে বড় ধরনের রাজস্ব ফাঁকি রয়েছে। কিন্তু সংশ্লিষ্ট সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট একজন রাজস্ব কর্মকর্তা ও দুজন সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তাকে ম্যানেজ করে পণ্য চালানটি গোপনে খালাস করেন। পরে অতিরিক্ত কমিশনার ড. নেয়ামুল ইসলাম বুঝতে পেরে চালানটির চার ট্রাক পণ্য আটকের নির্দেশ দেন। কিন্তু তার নির্দেশনা উপেক্ষা করে তিন জন রাজস্ব কর্মকর্তার সহযোগিতায় ট্রাকগুলো ছেড়ে দেওয়া হয়। ফলে সরকার ৩০ লাখ টাকার রাজস্ব বঞ্চিত হয়।

পরবর্তী সময়ে অতিরিক্ত কমিশনার অভিযুক্ত তিন রাজস্ব কর্মকর্তা নাশেদুল ইসলাম, সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা আশাদুল্লাহ ও ইবনে নোমানকে বরখাস্ত করেন। এছাড়া রাজস্ব ফাঁকির অভিযোগে সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টস মেসার্স মদিনা এন্টারপ্রাইজ ও মেসার্স মাহিবি এন্টার প্রাইজের লাইসেন্স সাময়িক বাতিল করা হয়।

বেনাপোল কাস্টমস হাউসের অতিরিক্ত কমিশনার জানান, ঘটনাটি রাজস্ব বোর্ডকে অবহিত করা হয়েছে।





সম্পূর্ণ রিপোর্টটি প্রথম আলোতে পড়ুন

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: