ডা. সাবরিনার অবৈধ সম্পদ অনুসন্ধানে দুদক

আদালতে নেওয়া হচ্ছে ডা. সাবরিনাকে জেকেজি হেলথ কেয়ারের চেয়ারম্যান ডা. সাবরিনা চৌধুরীর অবৈধ সম্পদ অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত নিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। সোমবার (১৩ জুলাই) কমিশন থেকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন দুদকের পরিচালক (জনসংযোগ) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য।
তিনি জানান, সরকারি চাকরিতে (জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট-এ কর্মরত) বহাল থেকে তার স্বামী আরিফ চৌধুরীর সহায়তায় প্রতারণা ও জালিয়াতির মাধ্যমে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে করোনা রোগীদের নমুনা সংগ্রহের অভিযোগ রয়েছে। নমুনা সংগ্রহ করে ১৫,৪৬০টি ভুয়া মেডিক্যাল রিপোর্ট প্রস্তুত ও সরবরাহ করে ৮ কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়াসহ জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগ অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন।
এর আগে কমিশনের সংশ্লিষ্ট অণুবিভাগগুলো বিভিন্ন ব্যক্তি, গণমাধ্যম, ভার্চুয়াল মাধ্যমসহ বিভিন্ন উৎস হতে ডা. সাবরিনার বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগগুলো সংগ্রহ করে। এসব তথ্য-উপাত্ত সংবলিত অভিযোগ কমিশনের দৈনিক ও সাম্প্রতিক অভিযোগ সেল কমিশনে উপস্থাপন করলে কমিশন এ সিদ্ধান্ত নেয়। কমিশনের বিশেষ তদন্ত অণুবিভাগের মাধ্যমে এই অভিযোগটি অনুসন্ধান করা হবে।

আরও পড়ুন:
ডা. সাবরিনা ৩ দিনের রিমান্ডে
থানা হাজতে সারারাত জেগে ছিলেন ডা. সাবরিনা

করোনা টেস্টে প্রতারণা: জেকেজির চেয়ারম্যান ডা. সাবরিনা গ্রেফতার

ডা. সাবরিনা বরখাস্ত





আরও পড়ূন বাংলা ট্রিবিউনে

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: