মালয়েশীয় নিউজ পোর্টালের বিরুদ্ধে শুনানি শুরু

পাঠকের মন্তব্যের জের ধরে মালয়েশিয়ার একটি আদালতে দেশটির নিউজ পোর্টাল মালয়েশিয়াকিনি ও এর এডিটর-ইন-চিফের বিরুদ্ধে সরকারের দায়ের করা মামলার শুনানি শুরু হয়েছে। মামলাটিকে দেশটির সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতার পরীক্ষা হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে। মানবাধিকার সংগঠনগুলো বলছে, প্রধানমন্ত্রী মুহিদ্দিন ইয়াসিনের শাসনামলে মাত্র চার মাসে সমালোচনামূলক সংবাদমাধ্যমের কণ্ঠরোধ করা হচ্ছে। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এখবর জানিয়েছে।


গত মাসে মালয়েশিয়ার অ্যাটর্নি জেনারেল মালয়েশিয়াকিনি ও এর এডিটর-ইন-চিফ স্টিভেন গ্যানের বিরুদ্ধে তাদের ওয়েবসাইটে পাঠকের পাঁচটি মন্তব্যের কারণে মানহানির মামলা দায়ের করেন। সরকারের অভিযোগ, ওই মন্তব্যগুলো বিচার ব্যবস্থার প্রতি জনগণের অনাস্থা তৈরি করবে।
এমন সময় এই মামলার শুনানি শুরু হলো যখন কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরার একটি প্রতিবেদন প্রকাশের জের ধরে সংস্থাটির সাংবাদিকদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে এবং সাক্ষাৎকার দেওয়ায় দেশটিতে কর্মরত এক বাংলাদেশির ওয়ার্ক পারমিট বাতিল করা হয়েছে।
মালয়েশিয়াকিনি ও গ্যান কারাদণ্ডসহ জরিমানার মুখে পড়তে পারেন। তারা দাবি করেছেন, পুলিশ যোগাযোগ করার পরই পাঠকের আপত্তিকর মন্তব্য ওয়েবসাইট থেকে অপসারণ করা হয়েছে। ফলে পাঠকের মন্তব্যের জন্য তাদের দায়ী করার সুযোগ নেই।
সোমবার শুনানিতে মালয়েশিয়াকিনির আইনজীবী মালিক ইমতিয়াজ সারওয়ার যুক্তি তুলে ধরে বলেন, এই মন্তব্যগুলো প্রকাশ করার কোনও ইচ্ছে পোর্টালের ছিল বলে কোনও প্রমাণ নেই।
সরকারের আইনজীবী বলছেন, মন্তব্য প্রকাশের জন্য পোর্টাল ও এর দায়িত্বে থাকা ব্যক্তিদের অবশ্যই দায় নিতে হবে। তিনি দাবি করেন, পোর্টালের মন্তব্য যাচাই ব্যবস্থা অনুপযুক্ত হওয়ার ফলেই এই মন্তব্যগুলো প্রকাশিত হয়েছে।
কেন্দ্রীয় আদালতের বিচারক রোহানা ইউসুফ বলেছেন, এই মামলার রায় দিতে দেশটির সর্বোচ্চ আদালতের আরও সময় লাগবে।





আরও পড়ূন বাংলা ট্রিবিউনে

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: