করোনা সেবায় ইমপালস হাসপাতাল

ইমপালস হাসপাতালে সেবা নিচ্ছেন রোগীরা। ছবি: সংগৃহীতবর্তমানে দেশে করোনায় সংক্রমিত রোগীদের সেবা দিচ্ছে ইমপালস হাসপাতাল। এটি ৪০০ বেডের একটি হাসপাতাল। করোনার আতঙ্কজনক পরিস্থিতিতে প্রাইভেট খাতে ইমপালসই প্রথম বিশেষ স্বয়ংসম্পূর্ণ করোনা চিকিৎসার ব্যবস্থা করে। গত ৯ মে থেকে এখানে ২৫০ জন ভর্তিকৃত রোগী চিকিৎসা পাচ্ছেন।

ইমপালস কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, হাসপাতালটিতে ৩৬টি আইসিইউ বা এইচডিইউ আছে। সম্প্রতি বেডসংখ্যা বাড়িয়ে ১০০ এবং আইসিইউ বাড়িয়ে ৫৬ করা হয়েছে। প্রতিটি আইসিইউ বা এইচডিইউ বেড স্বয়ংসম্পূর্ণ এবং কোভিড রোগীর জন্য বিশেষভাবে তৈরি করা। প্রতিটি বেডের সঙ্গে হাই-ফ্লো-নাজাল ক্যানুলা (এইচএফএনসি), বিদেশি অত্যাধুনিক ভেন্টিলেটর, সিপিএপি বা বিআইপিএপি মেশিন, মনিটর, সেন্ট্রাল অক্সিজেন সুবিধা আছে।

ইমপালস কর্তৃপক্ষ দাবি করেছে, তারা এ মুহূর্তে দেশে বেসরকারি খাতে সর্বোচ্চসংখ্যক কোভিড রোগীকে আইসিইউ সেবা দিতে পারছে। এ ক্ষেত্রে হাসপাতালের অভিজ্ঞ চিকিৎসক ও দক্ষ স্বাস্থ্যকর্মীর দল কাজ করছে। চিকিৎসকদের মনোবল বাড়ানোর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা থাকায় আন্তরিক সেবা দেওয়া সম্ভব হয়। এখানে কোভিডে আক্রান্ত রোগীদের স্বাভাবিক ও সিজারিয়ান ডেলিভারির সুবিধাও রয়েছে। এ ছাড়া ডায়ালাইসিসের সুবিধাও চালু রয়েছে।

ইমপালস সংক্রমণ ঠেকাতে সব ধরনের ব্যবস্থা চালু রাখায় এখানে এখন পর্যন্ত কোনো রোগী সংক্রমণের শিকার হয়নি। চিকিৎসকেরাও যথেষ্ট সাবধানতার সঙ্গে সেবা দেন। ইনফেকশন রোধে দেশীয় এবং আন্তর্জাতিক নীতিমালা বাস্তবায়ন করা হয়। প্রধান হাসপাতাল ভবনটি কোভিড কার্যক্রমের জন্য কাজে লাগানো হচ্ছে।

করোনাভাইরাস পরিস্থিতি মোকাবিলায় সুষ্ঠু কার্যক্রম চালিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে প্রতিশ্রুতি দেয় হাসপাতালটির কর্তৃপক্ষ।





সম্পূর্ণ রিপোর্টটি প্রথম আলোতে পড়ুন

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: