টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ স্থগিতের ঘোষণা আসছে এ সপ্তাহেই

আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ট্রফি। ছবি: টুইটারঢাক ঢাক গুড় গুড় হয়ে ভাসছিল গুঞ্জন। করোনা মহামারির মধ্যে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ হবে তো! বেশির ভাগই আশা দেখেননি। এ নিয়ে নানা বিতর্কও করছেন অনেকে। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জায়গায় আইপিএল আয়োজন করলে কী হবে! অস্ট্রেলিয়ার মতো উন্নত দেশ কেন অংশ নেওয়া দলগুলোকে প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্য নিরাপত্তা দিতে পারবে না, এমন সব নানা রকম আলোচনা। এদিকে আজ অস্ট্রেলিয়ান সংবাদমাধ্যম জানিয়ে দিল, অক্টোবরে অনুষ্ঠেয় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ভাগ্য ঠিক হয়ে গেছে। হচ্ছে না এ বছরের নির্ধারিত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ।

অস্ট্রেলিয়া আয়োজক হওয়ায় দেশটির সংবাদমাধ্যমের এ টুর্নামেন্ট নিয়ে বেশি খোঁজখবর রাখার কথা। আজ তাদের সংবাদমাধ্যম ‘টেলিগ্রাফ’ ও ‘সিডনি মর্নিং হেরাল্ড’ একযোগে জানিয়েছে এই সপ্তাহেই আনুষ্ঠানিকভাবে স্থগিত ঘোষণা করা হবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। শুক্রবার আইসিসির অফিশিয়ালদের সঙ্গে সাক্ষাতের ঘোষণাটি দিতে পারে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ)। ১৮ অক্টোবর থেকে অস্ট্রেলিয়ায় শুরু হওয়ার কথা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। করোনা মহামারির চলছে বলে এ টুর্নামেন্ট নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে সময় নিচ্ছে আইসিসি। সিডনি মর্নিং হেরাল্ডকে সূত্র জানিয়েছে, স্থগিতের সিদ্ধান্ত এখনো চূড়ান্ত না হলেও সেটা হওয়ার সম্ভাবনাই সবচেয়ে বেশি।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ স্থগিত হলে আইপিএল আয়োজনের রাস্তা খুলে যাবে বলে মনে করছেন অনেকে। অস্ট্রেলিয়ার খ্যাতিমান সংবাদকর্মী বেন হোর্নে জানিয়েছেন, জমকালো এই ঘরোয়া লিগ শ্রীলঙ্কা অথবা সংযুক্ত আরব আমিরাতে আয়োজিত হতে পারে। শুক্রবারের বৈঠকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ কবে অনুষ্ঠিত হবে তা নিয়ে হয়তো চূড়ান্ত কোনো সিদ্ধান্ত হবে না। তবে অস্ট্রেলিয়া এ টুর্নামেন্ট ২০২১ সালের অক্টোবরে আয়োজন করতে চায়। কিন্তু আগামী বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আয়োজক দেশ ভারত আর টুর্নামেন্টটি শুরু হওয়ার কথা অক্টোবরেই। এ কারণে এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দুই বছর পিছিয়ে নেওয়ার সম্ভাবনা বেশি বলে জানিয়েছে অস্ট্রেলিয়ান সংবাদমাধ্যম।

সিএ সভাপতি আর্ল হেডিংস গত মাসেই টুর্নামেন্ট স্থগিতের ইঙ্গিত দিয়ে রেখেছিলেন, বলেছিলেন করোনা মহামারির মধ্যে এ টুর্নামেন্ট আয়োজন ‘অবাস্তব এবং খুব খুব কঠিন।’ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়ে আইসিসি সিদ্ধান্ত নিতে দেরি করায় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই) আর ধৈর্য ধরে থাকতে পারেনি। তারা এর আগে জানিয়ে দেয়, আগামী মৌসুমের পরিকল্পনা করা হচ্ছে। এর মধ্যে অক্টোবরে আইপিএল আয়োজন করার ইচ্ছাও জানায় বিসিসিআই।

 





সম্পূর্ণ রিপোর্টটি প্রথম আলোতে পড়ুন

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: