বড় দেরি করে ছন্দে ফিরল বার্সেলোনা

গ্রিজমানের গোলের পর মেসির সঙ্গে উদ্‌যাপন, পাশে সতীর্থ জর্ডি আলবা। ছবি: এএফপিআগের কয়েক ম্যাচে হারিয়ে যাওয়া ছন্দটা ফিরল এই ম্যাচে। একাদশে ফিরলেন আঁতোয়ান গ্রিজমান। লিওনেল মেসি, লুইস সুয়ারেজ আর গ্রিজমানকে নিয়ে গড়া আক্রমণভাগের কাছে যেমন ধারালো ফুটবল চান সমর্থকেরা, দেখা গেল সেটিও। আর তাতেই ভিয়ারিয়ালের মাঠ এস্তাদিও দে লা সিরামিকা থেকে ৪-১ গোলের দারুণ এক জয় নিয়ে ফিরল বার্সেলোনা।

কিন্তু এই ছন্দে ফিরতে কি একটু দেরি করে ফেলল কিকে সেতিয়েনের দল? লা লিগা যে রিয়াল মাদ্রিদের ঘরে চলে গেছে প্রায়। ৩৪ ম্যাচে ২২ জয় ও সাত ড্রয়ে লিগের দ্বিতীয় স্থানে থাকা বার্সেলোনার পয়েন্ট আপাতত ৭৩। সমান ম্যাচে ৭৭ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল। লিগে দুই দলেরই বাকি আর চারটি করে ম্যাচ। শিরোপার জন্য নিজেরা তো জিততে হবেই, মেসিদের আশায় থাকতে হবে রিয়াল মাদ্রিদ যাতে পয়েন্ট হারায়। যদিও জিনেদিন জিদানের দলটার মধ্যে আপাতত পা হড়কানোর কোনো লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না।

আগের চার ম্যাচের মধ্যে তিনটিতেই একাদশে ছিলেন না। গ্রিজমান খেলেছেন বদলি হিসেবে। এ নিয়ে গ্রিজমানের ভাই ও বাবাও টুইট করে ক্ষোভ ঝেড়েছেন বার্সা কোচ সেতিয়েনের ওপর। ভিয়ারিয়ালের বিপক্ষে সেই গ্রিজমানকে দেখা গেল একাদশে। কোচ কে নিরাশ করলেন না ফরাসি ফরোয়ার্ড। বিরতির আগে শেষ মুহূর্তে মেসির পাস থেকে দারুণ এক গোল করেছেন। এর আগে ম্যাচের তৃতীয় মিনিটেই ভিয়ারিয়ালের আত্মঘাতী গোলে বার্সেলোনা এগিয়ে যাওয়ার পর ১৪ মিনিটে সমতা ফিরিয়েছেন জেরার্দ মোরেনো। ২০ মিনিটে মেসির পাস থেকে বার্সাকে এগিয়ে দেন লুইস সুয়ারেজ।

দুই সতীর্থকে দিয়ে দুই গোল করানো মেসির এই মৌসুমে অ্যাসিস্ট বেড়ে হলো ১৯টি। এক মৌসুমে সতীর্থদের দিয়ে সবচেয়ে বেশি গোল করানোর নতুন রেকর্ড গড়েছেন বার্সা অধিনায়ক। এর আগে ২০১০-১১ ও ২০১৪-১৫ মৌসুমে ১৮টি করে গোল করিয়েছিলেন সতীর্থদের দিয়ে।

মেসি-সুয়ারেজ-গ্রিজমানের একসঙ্গে জ্বলে ওঠার দিনে বদলি নেমে ৮৬ মিনিটে জর্ডি আলবার পাস থেকে দলের চতুর্থ গোলটি করেন আনসু ফাতি। যাতে দারুণ এক মাইলফলক ও ছুঁয়ে ফেলে বার্সেলোনা। সব টুর্নামেন্ট মিলে বার্সেলোনার ইতিহাসে এটি ৯০০০তম গোল।

এমন রাতে বার্সা কোচ কিকে সেতিয়েনের মনমেজাজ বেশ ফুরফুরে থাকবে এটাই স্বাভাবিক। মেসির সঙ্গে বনিবনা না হওয়া, গ্রিজমানকে একাদশে না রাখা, দল ছন্দে না থাকা, সব মিলিয়ে আগের কিছুদিন যে খুব চাপে ছিলেন বার্সা কোচ! কাল সেই চাপটা একটু সরে যাওয়ায় নির্ভার তিনি। তবে এটাও স্বীকার করলেন, ‘আমাদের এ রকম একটা ম্যাচ আরও আগেই দরকার ছিল।” শিরোপার লড়াইয়ে রিয়াল মাদ্রিদের এগিয়ে যাওয়া নিয়ে তাঁর কথা, ‘আমাদের পয়েন্ট সংগ্রহ করে যেতে হবে। তার পর দেখা যাক কী হয়!’

আসলেই এখন অনেক কিছুই যে নিজেদের হাতে নেই বার্সেলোনার।





সম্পূর্ণ রিপোর্টটি প্রথম আলোতে পড়ুন

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: