মেসেঞ্জারের ‘ভ্যানিশ মোড’ সাইবার অপরাধ বাড়াবে?

কিছুদিন আগে ফেসবুক মেসেঞ্জার ও ইনস্টাগ্রামে যুক্ত হয়েছে ‘ভ্যানিশ মোড’ ফিচার। এটি ব্যবহার করলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে কাউকে পাঠানো মেসেজ ডিলিট হয়ে যায়। এরই মধ্যে ফিচারটি বেশ সাড়া ফেলেছে। ব্যবহারকারীরাও ‘ভ্যানিশ মোড’ পেয়ে উল্লসিত। তবে দেশের প্রযুক্তি বিশ্লেষকরা এই উল্লাসে যোগ দিচ্ছেন না। তারা মনে করছেন, ভ্যানিশ মোড-এ ভর করে আরও বিস্তৃত হতে পারে সাইবার ক্রাইম জগত।

এ বিষয়ে প্রযুক্তি বিশ্লেষক ও এশিয়া প্যাসিফিক নেটওয়ার্ক ইনফরমেশন সেন্টারের (এপনিক) নির্বাহী কমিটির সদস্য সুমন আহমেদ সাবির বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘এটা উভয়সঙ্কট তৈরি করতে পারে। এক দিকে প্রাইভেসি বাড়লো। অন্যদিকে হয়রানি বাড়ার সুযোগও তৈরি হলো।’ বিষয়টি নিয়ে ভাববার অবকাশ আছে বলে তিনি মনে করেন।

‘ভ্যানিশ মোড’ চালু হওয়ার দিনে প্রযুক্তি বিষয়ক সংবাদমাধ্যম জিএসএম এরিনার এক প্রতিবেদনে বলা হয়, মেসেঞ্জার ও ইনস্টাগ্রামে ‘ভ্যানিশ মোড’ নামের নতুন একটি ফিচার এসেছে। এই ফিচার ব্যবহার করলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে মেসেজ ডিলিট হয়ে যাবে। হোয়াটসঅ্যাপে ‘ডিসঅ্যাপিয়ারিং মেসেজেস’ ফিচার যুক্ত হওয়ার ১০ দিন পর মেসেঞ্জার ও ইনস্টাগ্রামে ‘ভ্যানিশ মোড’ ফিচার এলো।

একই সময়ে মেসেঞ্জার ও ইনস্টাগ্রামের নতুন এই ফিচার সম্পর্কে টেক ক্রাঞ্চ এক প্রতিবেদনে জানায়, স্ন্যাপচ্যাটে মেসেজ দেখার পর যেভাবে ডিলিট হয়ে যায়, ‘ভ্যানিশ মোড’ ব্যবহার করলে মেসেঞ্জার ও ইনস্টাগ্রামেও তেমনটিই হবে। তবে স্ন্যাপচ্যাটের মতো মেসেঞ্জার ও ইনস্টাগ্রামে ফিচারটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে চালু থাকবে না। অপশনে গিয়ে ব্যবহারকারীকে এটি চালু করতে হবে।

ফেসবুক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ‘ভ্যানিশ মোড’ ব্যবহার করে মেসেঞ্জার ও ইনস্টাগ্রামে টেক্সট, ইমোজি, ছবি, ভয়েস মেসেজ, স্টিকার, জিআইএফ পাঠানো হলে প্রাপক সেগুলো দেখার পর চ্যাট উইন্ডো ক্লোজ করলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ডিলিট হয়ে যাবে। অর্থাৎ, প্রেরকের পাঠানো কোনও মেসেজই প্রমাণ হিসেবে থাকবে না।

ধরুন, ‘ভ্যানিশ মোড’ ব্যবহার করে আপনি কাউকে মেসেজ পাঠালেন। প্রাপক সেই মেসেজ দেখে চ্যাট উইন্ডো ক্লোজ করার সঙ্গে সঙ্গে আপনার পাঠানো মেসেজটি ডিলিট হয়ে যাবে। এক্ষেত্রে আপনার পাঠানো মেসেজের কোনও রেকর্ড থাকবে না। ব্যবহারকারীরা যেন আরও স্বাচ্ছন্দ্যে মেসেঞ্জার ও ইনস্টাগ্রাম ব্যবহার করতে পারেন, সেজন্যই ফিচারটি আনা হয়েছে বলে দাবি করছে ফেসবুক।

তবে ভিন্নমত দেশের প্রযুক্তি বিশ্লেষকরা। তাদের দাবি, দেশে এমনিতেই সাইবার অপরাধ বাড়ছে। তার ওপর মেসেঞ্জারের এই ‘ভ্যানিশ মোড’ সুবিধা পেয়ে লাগামহীন আচরণ করবে অপরাধীরা। তারা বিভিন্ন জনকে আপত্তিকর মেসেজ বা হুমকি পাঠাবে। বিশেষ করে ফেসবুকের নতুন এই সুবিধার কুফল ভোগ করতে হবে নারীদের।

প্রযুক্তি বিষয়ক গবেষণা প্রতিষ্ঠান প্রেনিউর ল্যাবের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী আরিফ নিজামি উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, ‘এটিতে ভালো-মন্দ দুই-ই হবে। মেসেঞ্জারের এ সুবিধাটি জনপ্রিয়তা পাবে। মিলেনিয়ালদের (২০০০ সালের দিকে যাদের জন্ম) কাছে এটি বেশ গ্রহণযোগ্যতা পাবে বলে মনে হচ্ছে। তবে এতে হয়রানি বাড়তে পারে। প্রাইভেসির কথা ভাবলে ভালো হবে। তবে জাতীয় নিরাপত্তার বিষয়টি নিয়ে চিন্তা করলে এটা একটা ইস্যু হতে পারে।’

তিনি জানান, ফেসবুকের যে স্টোরি ফিচারটি রয়েছে, সেটি ২৪ ঘণ্টার বেশি থাকে না। মেসেঞ্জারের কোনও তথ্যের জন্য কারও বিরুদ্ধে কোনও অভিযোগ প্রামণ করতে চাইলে অনুসন্ধান করতে হবে। প্রথমেই যে বাধা আসবে, তা হলো তথ্য পাওয়া যাবে না। তাই এই সুবিধা আশঙ্কার জন্ম দিতে পারে।

 

 





সম্পূর্ণ রিপোর্টটি প্রথম আলোতে পড়ুন

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: