খুলনা বিভাগে করোনায় মৃত্যু ১ দশমিক ৮ শতাংশ

প্রতীকী ছবি। ছবি: রয়টার্সখুলনা বিভাগে কোভিড-১৯ রোগীদের সুস্থ হওয়ার হার বাড়ছে। বিভাগে এ পর্যন্ত আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা ৯ হাজার ৪৮৪। এর মধ্যে ৫০ শতাংশ সুস্থ হয়েছে। বিভাগে কোভিড-১৯ রোগের মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৮ শতাংশ।

খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাওয়া তথ্যে দেখা গেছে, গতকাল সোমবার সকাল ৮টা থেকে আজ মঙ্গলবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগে নতুন করে ২৮০ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। বিভাগের ১০ জেলায় এই সময়ে ৫ জন রোগী মারা যাওয়ায় মৃত মানুষের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৭১।

খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক (প্রশাসন) মো. মনজুরুল মুরশিদ জানান, বিভাগে নতুন করে ২০৯ জন সুস্থ হয়েছেন। এ নিয়ে সুস্থ হলেন ৪ হাজার ৭৩৩ জন। শনাক্ত বিবেচনায় বিভাগে সুস্থ হওয়ার হার ৫০ শতাংশ।

বিভাগের মধ্যে চুয়াডাঙ্গায় প্রথম কোভিড–১৯ রোগী শনাক্ত হয় গত ১৯ মার্চ। পরবর্তী ৭৩ দিনে শনাক্তের সংখ্যা ৫০০ ছাড়ায়। কিন্তু সোমবার (২০ জুলাই) ১২২তম দিনে রোগীর সংখ্যা ৯ হাজার ছাড়ায়।

গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন শনাক্ত হয়েছেন ২৮০ জন। এর মধ্যে খুলনা জেলায় ৭৩, বাগেরহাটে ২২, চুয়াডাঙ্গায় ৪৬, যশোরে ২৭, ঝিনাইদহে ১৯, কুষ্টিয়ায় ৪৩, মাগুরায় ৯, মেহেরপুরে ৪ এবং সাতক্ষীরায় ৩৭ জন। এই সময়ে নড়াইলে কোনো রোগী শনাক্ত হয়নি।

অধিদপ্তরের দেওয়া হিসাবে, বিভাগের মোট আক্রান্ত ৯ হাজার ৪৮৪ জনের মধ্যে ৩ হাজার ৭৩৭ জনই খুলনা জেলার। বিভাগের মোট রোগীর প্রায় ৪০ শতাংশ খুলনার। এ ছাড়া বাগেরহাটে ৪৩৩, চুয়াডাঙ্গায় ৪৪৬, যশোরে ১ হাজার ৪২৬, ঝিনাইদহে ৬৬৪, কুষ্টিয়ায় ১ হাজার ২৩৬, মাগুরায় ৩৩৪, মেহেরপুরে ১৩৭, নড়াইলে ৫২৪ এবং সাতক্ষীরায় ৫৪৭ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে।

বিভাগে মৃত মানুষের সংখ্যা এখন ১৭১। খুলনায় সবচেয়ে বেশি ৫৬ জন মারা গেছেন। এ ছাড়া কুষ্টিয়ায় ২৮, যশোরে ২০, সাতক্ষীরায় ১৫, ঝিনাইদহে ১৩, বাগেরহাটে ১০, নড়াইলে ৯, মাগুরা ও মেহেরপুরে ৭ জন করে এবং চুয়াডাঙ্গায় ৬ জন মারা গেছেন।





সম্পূর্ণ রিপোর্টটি প্রথম আলোতে পড়ুন

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: