কোন পরিচিত দম্পতির ঘরে নবজাতক শিশু এলে আপনার ১০টি করণীয়

আশেপাশে পরিচিত অনেকের পরিবারেই এসেছে-আসছে-আসবে নতুন শিশু। সেই শিশুকে স্থান ছেড়ে দেয়ার পাশাপাশি আগে দেখতেও যাওয়া জরুরি। দেখতে যাওয়ার সময় উপহার কেনার সংস্কৃতি রয়েছে। তবে শুধু কি উপহার দিলেই চলবে? পালন করতে হবে আরও কিছু দায়িত্ব। চলুন একবার সেসব ‘মহান দায়িত্বের’ উপর চোখ বুলিয়ে নেয়া যাক-

১# সবার আগে তো গায়ের রঙ চোখে পড়বে! চোখে না পড়ুক, দেখার সাথে সাথে মাকে বলুন, ‘পোয়াতি থাকতে দুধ-কলা বেশি করে খাও নাই? বাচ্চা তো ফর্সা হইলো না।’

২# গর্ভবতী থাকা অবস্থায় আপনার কোন কোন পরামর্শ না মানায় বাচ্চার নাক চ্যাপটা হয়েছে, চুল বড় হয়েছে, পায়ের নখ সাদা হয়েছে সেসবও মনে করে বলবেন। এমনকি গর্ভাবস্থায় কোন পরামর্শ দিয়ে না থাকলেও এসব বলতে ভুলবেন না।

৩# বাচ্চার স্বাস্থ্য নিয়েও কথা বলুন। গর্ভাবস্থায় বাচ্চার মা যদি বাপের বাড়ি থাকে তাহলেতো আপনার জন্য একেবারে চাঁদরাত। বাচ্চার দাদিকে গিয়ে বলুন, ‘বাপের বাড়িতে ঠিকঠাক যত্ন নেয় নাই। হেরলাইগা বাচ্চা মশকরা হইছে।’ বাপের বাড়ি না থাকলেও বিচলিত হওয়ার কারণ নেই। এক্ষেত্রে একই দোষ বাচ্চার দাদাবাড়ির উপর চাপিয়ে দিন।

৪# বাচ্চা হাসপাতালে হলে আপনার দায়িত্ব একটু বেড়ে যাবে। এক্ষেত্রে হাসপাতাল ছাড়াই যে আপনি এক ডজন বাচ্চা জন্ম দিছেন- এইসব তথ্য জানাতে পারেন।

৫# বাচ্চা ভূমিষ্ঠ হওয়ার পর মাকে দুই ঘন্টার বেশি বিছানায় থাকতে দিবেন না। এক্ষেত্রে, আপনি যে বাচ্চা জন্মদানের আধাঘন্টার মাথায় হালচাষ করেছিলেন তার রেফারেন্স দিবেন।

৬# মা যদি চাকরিজীবী হয় তাহলে বাচ্চার লালনপালন নিয়ে চিন্তা করতে করতে কয়েক বার হার্ট অ্যাটাক করুন।

৭# বাচ্চা হওয়ার ১ মাসের মধ্যে জামাইকে বউয়ের কাছে ঘেষতে দিবেন না। বেয়াদব জামাই যদি বাচ্চা হওয়ার সাথে সাথে বউয়ের পাশে বসে মাথায় হাত বুলিয়ে দেয় তাহলে আপনার ব্রম্মাস্ত্র প্রয়োগ করুন। বলুন, আজকালকার পোলাপানের লজ্জাশরম বলতে কিছু নাই।

৮# কন্যা সন্তান জন্ম নিলে সাথে সাথেই তার বিয়ে নিয়ে চিন্তা শুরু করে দিন। কোন কোন সমস্যার কারণে তার বিয়ে দিতে খবর আছে একে একে সব উল্লেখ করুন।

৯# ছেলে সন্তান হলে সামনের বছর যে একটা কন্যা সন্তান চান আপনারা, আর কন্যা হইলে চান ছেলে- এই কথাটি তাদের জানিয়ে দিন। প্রয়োজনে কবে থেকে তারা কাজে নামছে তাও জেনে নিন।

১০# সব দায়িত্ব পালন শেষে পরিচিত যত দম্পতি আছে তাদেরকে বলুন, ‘ওরা তো নিলো! তোমরা কবে নিবা? হু! হু! বলো, বলো!’ শুধু আশেপাশে না, দূরদূরান্তে থাকাদের ফোন করে সুসংবাদ দেয়ার পাশাপাশি তাদেরও একই কথা বলতে ভুলবেন না।





আরও পড়ুন eআরকিতে

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: