সব জেলা শহরে ইকোনোমি সিনেপ্লেক্স চান শিল্পমন্ত্রী

দেশের সব জেলা শহর ও মফস্বলের জন্য সুনির্দিষ্ট প্যাটার্নের ইকোনোমি সিনেপ্লেক্স চান শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন। সাধারণ মানুষের আর্থিক ক্ষমতা বিবেচনায় নিয়ে সিনেপ্লেক্স নির্মাণে বেসরকারি উদ্যোক্তাদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি। আর প্রকল্প বাস্তবায়নে সরকারের পক্ষ থেকে সাধ্যমতো সহযোগিতা করা হবে বলেও জানান মন্ত্রী।
মঙ্গলবার (২১ জুলাই) রাজধানীর মিন্টো রোডে অবস্থিত শিল্পমন্ত্রীর সরকারি বাসভবনে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রযোজক পরিবেশক সমিতির নেতাদের সঙ্গে বৈঠককালে শিল্পমন্ত্রী এসব কথা বলেন।
শিল্পমন্ত্রী বলেন, বাঙালি সংস্কৃতির গৌরবোজ্জ্বল ঐতিহ্য ও গ্রাম পর্যায়ে নির্মল বিনোদনের ধারা অব্যাহত রাখতে সিনেমা হল প্রয়োজন। সুস্থ ধারার চলচ্চিত্র প্রদর্শনের মাধ্যমে যুবসমাজকে মাদক, জুয়া, সন্ত্রাস, অনৈতিক কর্মকাণ্ড ও জঙ্গিবাদের করাল গ্রাস থেকে মুক্ত রাখা সম্ভব।
শহরের জন্য একই প্যাটার্নের এবং মফস্বলের জন্য একই প্যাটার্নের কম খরচে স্টিল স্ট্রাকচার সিনেপ্লেক্স নির্মাণের প্রকল্প গ্রহণ করতে সমিতির নেতাদের পরামর্শ দেন নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন।

বৈঠকে সমিতির নেতারা বলেন, ‘চলচ্চিত্রকে শিল্প হিসেবে ঘোষণা করা হলেও এখন পর্যন্ত এ বিষয়ে কোনও সরকারি আদেশ (এসআরও) জারি করা হয়নি। ফলে চলচ্চিত্র শিল্পখাত অন্যান্য শিল্পখাতের মতো সংশ্লিষ্ট সরকারি দফতর ও ব্যাংক/আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে প্রয়োজনীয় সুবিধাদি পাচ্ছে না। এ বিষয়ে দ্রুত একটি আদেশ জারি করতে ‌শিল্পমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন সমিতির নেতরা।
এছাড়া চলচ্চিত্র ও সিনেপ্লেক্স নির্মাণ সংশ্লিষ্ট যন্ত্রপাতির ওপর অন্যান্য শিল্প সামগ্রীর সমপরিমাণ কর আরোপ, চলচ্চিত্র রফতানিতে তৈরি পোশাক ও চামড়া শিল্পের মতো প্রণোদনা প্রদান, চলচ্চিত্র রপ্তানি আয়কে রেমিট্যান্স হিসেবে বিবেচনা এবং এখাতে রেমিট্যান্সের অনুরূপ সুবিধাদি দেওয়া, অন্য শিল্পখাতে ব্যবহৃত বিদ্যুতের মতো চলচ্চিত্র শিল্পে ব্যবহৃত বিদ্যুতের দাম নির্ধারণ, চলচ্চিত্র আমদানির ওপর স্বল্প ট্যাক্স নির্ধারণ, চলচ্চিত্র নির্মাণ ও সিনেমাহলের জন্য ওয়ান স্টপ সার্ভিস সেবা চালুর পদক্ষেপ নিতে আহ্বান জানানো হয়।
যৌথ প্রযোজনার ছবি ক্ষেত্রে বিদেশি শিল্পী ও কলাকুশলীদের জন্য ওয়ার্ক পারমিট ইস্যু ও তাদের সম্মানীর ওপর আরোপিত ১৫ শতাংশ ভ্যাট রহিত করে আয়কর সহজীকরণ করারও প্রস্তাব দেন নেতরা।
বৈঠকে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রযোজক পরিবেশক সমিতির সভাপতি খোরশেদ আলম খসরু, সিনিয়র সহ-সভাপতি কামাল মোহাম্মদ কিবরিয়া লিপু, সহ-সাধারণ সম্পাদক আলিমুল্লাহ খোকন, কোষাধ্যক্ষ মেহেদী হাসান সিদ্দিকী (মনির), সাংস্কৃতিক সম্পাদক মোরশেদ খান হিমেল, আন্তর্জাতিক সম্পাদক ইলা জাহান নদী এবং সদস্য জাহিদ হোসেন ও রশিদুল আমিন (হলি) উপস্থিত ছিলেন।





আরও পড়ূন বাংলা ট্রিবিউনে

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: