বিজিবি’র ১১৯ সদস্যের মুক্তিযোদ্ধা গেজেট বাতিলের সিদ্ধান্ত স্থগিত

হাইকোর্ট

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) একহাজার ১৩৪ জন মুক্তিযোদ্ধার গেজেট বাতিল করে প্রকাশিত প্রজ্ঞাপনটির কার্যকারিতা ১১৯ জনের ক্ষেত্রে স্থগিতের আদেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

মঙ্গলবার (৭ জুলাই) বিচারপতি জে বি এম হাসানের হাইকোর্টের ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার আব্দুল কাইয়ুম। আর রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল সমরেন্দ্র নাথ।

পরে আব্দুল কাইয়ুম সাংবাদিকদের জানান, বিজিবি’র একহাজার ১৩৪ জন মুক্তিযোদ্ধার গেজেট বাতিল আইনানুগ না হওয়ায় ক্ষুব্ধ ব্যক্তিরা রিট করেন।  আদালত রিটের শুনানি নিয়ে ১১৯ জনের ক্ষেত্রে গেজেটটি নিয়মিত আদালত না খোলা পর্যন্ত স্থগিতের করেছেন।

প্রসঙ্গত, গত ৭ জুন একহাজার ১৩৪ জন বিজিবি সদস্যের মুক্তিযোদ্ধা গেজেট বাতিল করে সরকার। ওই গেজেটে বলা হয়, জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল আইন ২০০২ এর ৭ (ঝ) ধারা অনুযায়ী জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের সুপারিশের পরিপ্রেক্ষিতে রুলস অব বিজনেস ১৯৯৬-এর শিডিউল-১ এর তালিকা ৪১-এর ৫ নম্বর ক্রমিকে প্রদত্ত ক্ষমতা বলে জামুকার ৬৬তম সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক স্বাধীনতা যুদ্ধের পর (১৬ ডিসেম্বর ১৯৭১ সালের) বিজিবির মুক্তিযোদ্ধাদের একহাজার ১৩৪ জনের নামে প্রকাশিত গেজেট বাতিল করা হলো।

পরে মোল্লা মোশাররফ হোসেনসহ ৮৭ জন এবং টাঙ্গাইলের সদর উপজেলারে বেথবাড়ীর ফজলুল হকসহ ৩২ জন ওই গেজেটের কার্যকারিতা স্থগিত চেয়ে পৃথক দুটি রিট দায়ের করেন।

এর আগেও আরেকটি রিটের পরিপ্রেক্ষিতে গত ১৭ জুন শুধু ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরের অবসরপ্রাপ্ত হাবিলদার আবু তাহেরের ক্ষেত্রে গেজেটটি স্থগিত করেছিলেন হাইকোর্ট।

 

 





আরও পড়ূন বাংলা ট্রিবিউনে

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: