অতর্কিত গুলি, জেএসএস (লারমা)-এর ৬ জন নিহত

বান্দরবা‌নে দৃর্বৃত্তদের অতর্কিত গু‌লি‌তে আঞ্চলিক রাজনৈতিক দল জনসংহতি সমিতি (জেএসএস) এমএন লারমা গ্রুপের জেলা সভাপতিসহ ছয় জন নিহত হয়েছেন। গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হয়েছেন আরও তিন জন। মঙ্গলবার (৭ জুলাই) সকালে ৭টার দিকে সদর উপজেলার রাজিবিলা ইউনিয়নের বাঘমারা বাজার পাড়ায় এই ঘটনা ঘটে। এই ঘটনাকে দুই গ্রুপের সংঘর্ষ বলে উল্লেখ করেছে পুলিশ।

নিহতরা হ‌লেন- জেএসএস সংস্কার এর জেলার সভাপ‌তি রতন তঞ্চঙ্গ্যা, সহসভাপ‌তি প্র‌জিত চাকমা, সদস্য ডে‌বিট বাবু, মিলন চাকমা, জয় ত্রিপুরা ও দি‌পেন ত্রিপুরা। এছাড়া গু‌লি‌বিদ্ধ তিন জন হ‌লেন- বিদ্যুৎ ত্রিপুরা, নিরু চাকমা ও মেমানু মারমা। আহতদের উদ্ধার করে বান্দরবান সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

গুলির ঘটনার পরপরই পরি‌স্থি‌তি নিয়ন্ত্র‌ণে ঘটনাস্থ‌লে ছু‌টে গে‌ছেন সেনাবা‌হিনী ও পু‌লিশ। বর্তমা‌নে বাঘমারা বাজারের সব দোকানপাট বন্ধ হয়ে গেছে। থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে বাঘমারা ও আশপাশের এলাকায়।

স্থানীয় ইউপি সদস্য স্যাম্প্রু মারমা জানান, সকালে বাঘমারা বাজারের মারমা পাড়ার পশ্চিম দিক থেকে একটি সশস্ত্র গ্রুপ এলাকায় প্রবেশ করে জেএসএস সংস্কারপন্থী গ্রুপের সভাপতির বাসায় অতর্কিত হামলা চালায়। নিহতরা সবাই ওখা‌নে অবস্থান করছিলেন। হামলার সময় ক‌য়েকজন পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করার সময় তাদেরও গুলি করে হত্যা করা হয়।

বান্দরবান পৌর মেয়র ও জেলা আওয়ামী লী‌গের সম্পাদক মো. ইসলাম বেবী জানান, গ্রুপগুলো নি‌জেরাই নি‌জে‌দের আ‌ধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র ক‌রে সংঘ‌র্ষে লিপ্ত হ‌চ্ছে। ইতোম‌ধ্যে ৬ জন মারা গে‌ছে ব‌লে আমরা জে‌নে‌ছি।।

বান্দরবান পু‌লিশ সুপার জে‌রিন আখতার জানান, দু‌টি গ্রু‌পের ম‌ধ্যে সংঘ‌র্ষের ঘটনা ঘ‌টে‌ছে। এ‌তে ছয় জন নিহত ও তিন জন আহত হ‌য়ে‌ছে। দুই জনকে উন্নত চি‌কিৎসার জন্য চট্টগ্রা‌মে প্রেরণ করা হ‌য়ে‌ছে। আর একজন‌কে কক্সবাজা‌রের চক‌রিয়ায় পাঠা‌নো হ‌য়ে‌ছে। ঘটনা‌টি এখ‌নো তদন্তাধীন। তদ‌ন্তের পর বিস্তা‌রিত বলা যা‌বে।

 

 





আরও পড়ূন বাংলা ট্রিবিউনে

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: