বগুড়ায় আরও ৭১ জনের কোভিড শনাক্ত

করোনাভাইরাস। ছবি: রয়টার্সবগুড়ায় করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) সংক্রমিত ব্যক্তির সংখ্যা সাড়ে তিন হাজার ছাড়ানোর পথে। গত ২৪ ঘণ্টায় জেলার আরও ৭১ জনের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে।

এ নিয়ে আজ মঙ্গলবার বেলা ১১টা পর্যন্ত জেলায় কোভিড-১৯–এ শনাক্ত মানুষের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩ হাজার ৪৪৬। জেলায় ২৪ ঘণ্টায় কেউ মারা যায়নি বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ। সরকারি হিসাবে জেলায় মৃত মানুষের সংখ্যা এখন পর্যন্ত ৬২।

২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনামুক্ত হয়েছেন ১৫০ জন। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত জেলায় করোনার সংক্রমণ থেকে সুস্থ হলেন ১ হাজার ১৭৮ জন। জেলায় ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ৩৫৯ জনের। মোট নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে এ পর্যন্ত ২০ হাজার ৭৮১টি। পরীক্ষার প্রতিবেদন মিলেছে ১৮ হাজার ৪২৬ জনের। সংগৃহীত নমুনা সংরক্ষিত রয়েছে আরও ২ হাজার ৩৫৫টি।

সিভিল সার্জনের কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ ও বেসরকারি টিএমএসএস মেডিকেল কলেজের আরটি-পিসিআর ল্যাবরেটরিতে ৩৩১টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে ৭১টি নমুনা কোভিড-১৯ ‘পজিটিভ’ শনাক্ত হয়েছে।

আজ বেলা ১১টায় জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের প্রতিদিনের অনলাইন ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য তুলে ধরেন বগুড়ার সিভিল সার্জন কার্যালয়ের মুখপাত্র ও ডেপুটি সিভিল সার্জন মোস্তাফিজুর রহমান। ডেপুটি সিভিল সার্জন জানান, শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ ল্যাবরেটরিতে ২৪ ঘণ্টায় বগুড়ার ১৮৮টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। তাতে ৩৫ জনের নমুনা পজিটিভ শনাক্ত হয়।

এদিকে বেসরকারি টিএমএসএস মেডিকেল কলেজ ল্যাবরেটরিতে ২৪ ঘণ্টায় ১৯০টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এখানে বগুড়ার ১৪৩টি নমুনার মধ্যে ৩৬ জনের পজিটিভ শনাক্ত হয়।

সরকারি-বেসরকারি দুই মেডিকেল কলেজের ল্যাবরেটরিতে ২৪ ঘণ্টায় ৩৩১টি নমুনা পরীক্ষায় জেলায় নতুন কোভিড পজিটিভ শনাক্ত হয়েছেন ৭১ জন। শনাক্ত হওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে ২১ জন নারী ও ২ জন শিশু রয়েছে। ১৮ থেকে ৪০ বছর বয়সী সর্বোচ্চ ৩০ জন রয়েছেন।

স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্য অনুযায়ী, জেলায় ২৪ ঘণ্টায় সংক্রমিত ব্যক্তিদের মধ্যে জেলা শহরের সর্বোচ্চ ৪২ জন রয়েছেন। এ ছাড়া নতুন করে শেরপুর উপজেলায় ১১, গাবতলী উপজেলায় ৭, শিবগঞ্জ উপজেলায় ৪, সারিয়াকান্দি উপজেলায় ৩, শাজাহানপুর উপজেলায় ২ এবং কাহালু ও সোনাতলা উপজেলায় একজন করে রয়েছেন।

ডেপুটি সিভিল সার্জন মোস্তাফিজুর রহমান আরও বলেন, গতকাল সোমবার পর্যন্ত জেলায় সংক্রমিত ছিলেন ৩ হাজার ৩৭৫ জন। নতুন করে ৭১ জনের শনাক্ত হওয়ায় এ পর্যন্ত জেলায় মোট সংক্রমিত হলেন ৩ হাজার ৪৪৬ জন। এর মধ্যে ২ হাজার ৩৩০ জন পুরুষ, ৯৩৯ জন নারী এবং ১৭৭টি শিশু রয়েছে।

স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্য অনুযায়ী, এ পর্যন্ত বগুড়া শহরে সর্বোচ্চ ২ হাজার ৩৮০ জনের কোভিড-১৯ শনাক্ত হয়েছে। অন্য উপজেলার মধ্যে শাজাহানপুরে ১৮০ জন, গাবতলীতে ১৮৫ জন, কাহালুতে ৮৩ জন, শেরপুরে ১৬০ জন, সারিয়াকান্দিতে ৮১ জন, সোনাতলায় ৭৩ জন, শিবগঞ্জে ৮৯ জন, আদমদীঘিতে ৩৭ জন, দুপচাঁচিয়ায় ৭২ জন, নন্দীগ্রাম উপজেলায় ৩৮ জন ও ধুনটে ৬৮ জন রয়েছেন।

জেলা শহরের সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতির লাগাম টানতে নয়টি এলাকাকে রেড জোন চিহ্নিত করে তিন সপ্তাহ ধরে চলমান লকডাউনের মেয়াদ ২১ জুলাই পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। নয়টি এলাকা হলো চেলোপাড়া, নারুলী, নাটাইপাড়া, জলেশ্বরীতলা, মালতিনগর, সূত্রাপুর, ঠনঠনিয়া, ঠনঠনিয়া হাড়িপাড়া ও কলোনি।





সম্পূর্ণ রিপোর্টটি প্রথম আলোতে পড়ুন

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: