টোকিওর দুই ডিজনি পার্কে নতুন নিয়মে মিকি মাউস ভক্তরা

টোকিও ডিজনি রিসোর্টে দর্শনার্থীরাজাপানের মিকি মাউস ভক্তরা দারুণ আনন্দিত। টোকিও ডিজনি রিসোর্টের দুটি থিম পার্কের দুয়ার দর্শনার্থীদের জন্য ফের খুলেছে। এর মধ্য দিয়ে এশিয়ায় ডিজনির সব চিত্তবিনোদনের জায়গা আনুষ্ঠানিকভাবে পুনরায় চালু হলো।

টোকিও ডিজনিল্যান্ড ও টোকিও ডিজনিসি গত ফেব্রুয়ারির শেষ সপ্তাহ থেকে করোনাভাইরাস মহামারির কারণে বন্ধ ছিল। এগুলো আবারও চালুর জন্য দর্শনার্থী ও কর্মীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিতে নিজস্ব নির্দেশিকা প্রণয়ন করেছে থিম পার্কটির পরিচালনা প্রতিষ্ঠান ওরিয়েন্টাল ল্যান্ড।

নতুন নিয়মের মধ্যে আছে আগাম টিকিট বুকিং দেওয়া, মুখে বাধ্যতামূলক মাস্ক ব্যবহার, শরীরের তাপমাত্রা পরীক্ষা ও পার্কের আকর্ষণীয় জায়গাগুলোতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা।

টোকিও ডিজনি রিসোর্টে দর্শনার্থীরাসব দর্শনার্থীকে অনলাইনে টিকিট বরাদ্দ দিতে হবে। একজন সর্বোচ্চ পাঁচটি টিকিট কিনতে পারবেন। প্রতিদিন কতসংখ্যক মানুষকে ঢুকতে দেওয়া হবে সেই তথ্য জানায়নি ওরিয়েন্টাল ল্যান্ড। ধারণা করা হচ্ছে, সাধারণ সময়ের তুলনায় রোজ ৫০ শতাংশ কম দর্শনার্থী ঘোরার সুযোগ পাবেন পার্ক দুটিতে।

এছাড়া ডিজনির পারিবারিক কিছু আয়োজন বদলেছে। যেমন প্যারেডসহ কয়েকটি অনুষ্ঠান স্থগিত থাকবে। মিকি ও মিনি মাউসকে দেখা গেলেও তারা ভক্তদের সঙ্গে মিশবে না বা ছবি তোলার জন্য পাশে দাঁড়াবে না। থিম পার্ক দুটির ইনডোরে বায়ু চলাচল ব্যবস্থা উন্নত করা হচ্ছে এবং সরঞ্জামাদিসহ সব রাইড নিয়মিত জীবণানাশক ছিটাচ্ছে কর্তৃপক্ষ।

টোকিও ডিজনি রিসোর্টে দর্শনার্থীদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে সচেতনতা বৃদ্ধিএতসব বাঁধাধরা নিয়মের পরও ডিজনিপ্রেমীদের উৎসাহ কমেনি। গত ১ জুলাই টোকিও ডিজনিল্যান্ড ও টোকিও ডিজনিসি’র দুয়ার খোলার পর এগুলোর সামনে চিহ্ন এঁকে দেওয়া নির্দিষ্ট স্থানে সারি বেঁধে দাঁড়ানো দর্শনার্থীরা করতালি দেন। সবার মুখে ছিল মাস্ক। মেয়েদের মাথায় চোখে পড়েছে মিকি মাউসের হেডব্যান্ড।

প্রবেশপথে হাত পরিষ্কার রাখা, নগদ টাকার ব্যবহার পরিহার করা এবং প্রিয় চরিত্র দেখা ও মজার সব রাইড উপভোগের সময় হর্ষধ্বনি না দিতে সচেতনতা বৃদ্ধি করা হয়েছে।

টোকিও ডিজনি রিসোর্টে দর্শনার্থীরাজাপানে সবচেয়ে বেশি করোনা রোগী টোকিওর বাসিন্দারা। শহরটি থেকে ১৫ কিলোমিটার দূরে থিম পার্ক দুটি। এগুলোতে ২০১৮ সালে ৩ কোটি ২৫ লাখ দর্শনার্থী ঘুরেছে। গত বছর ৪০০ কোটি ডলারেরও বেশি (৩৪ হাজার ৪১৫ কোটি ৯৫ লাখ টাকা) রাজস্ব এনে দিয়েছে এগুলো। জুনের মাঝামাঝি চিত্তবিনোদনের পার্ক ফের খোলার অনুমতি দেওয়া হয়। এর আগে মে মাসে জাপান সরকার কিছু জায়গা থেকে জরুরি অবস্থা তুলে নেয়।

টোকিও ডিজনি রিসোর্টে দর্শনার্থীরাগত ১১ মে সাংহাই ডিজনিল্যান্ডের মাধ্যমে ডিজনির থিম পার্ক ফের চালু হয়। এরপর ১৮ জুন দুয়ার খুলেছে হংকং ডিজনিল্যান্ড। এগুলোতে সবার জন্য সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা ও মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক। যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া, ফ্লোরিডা ও ফ্রান্সের ডিজনিল্যান্ডগুলো এখনও বন্ধ।

ডিজনির পরিকল্পনা ছিল, মধ্য জুলাইয়ের মধ্যে বিশ্বজুড়ে তাদের ১২টি থিম পার্ক ফের চালু করে দেবে। এর মধ্যে ১১ জুলাই যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা রাজ্যের অরল্যান্ডোতে অবস্থিত ডিজনি ওয়ার্ল্ড এবং ১৫ জুলাই ডিজনিল্যান্ড প্যারিস খোলার কথা রয়েছে। কিন্তু  কর্মীদের সুরক্ষা নিয়ে উদ্বিগ্ন শ্রমিক ইউনিয়ন। কারণ এসব এলাকায় কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্তের সংখ্যা ধাপে ধাপে বাড়ছে। প্রায় সাত হাজার মানুষ একটি পিটিশনে স্বাক্ষর করে ডিজনিকে পুনরায় পার্ক চালুর দিনক্ষণ পিছিয়ে দেওয়ার আহ্বান জানায়।

টোকিও ডিজনি রিসোর্টে দর্শনার্থীদের মুখে ডিজনি চরিত্রঅন্যদিকে আমেরিকায় ডিজনিল্যান্ড ও ডিজনি ক্যালিফোর্নিয়া অ্যাডভেঞ্চার ১৭ জুলাই আবারও চালুর কথা থাকলেও তা অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত হয়েছে। কারণ থিম পার্কের জন্য নির্দেশিকা প্রকাশে বিলম্ব করছে ক্যালিফোর্নিয়া রাজ্যে। ডিজনির একজন মুখপাত্র এক বিবৃতিতে বলেন, ‘আমাদের হাজার হাজার সদস্যকে কাজে ফিরিয়ে কার্যক্রম পুনরায় চালুর জন্য দিনক্ষণ ঠিক করলেও সরকারের অনুমোদন না পাওয়া পর্যন্ত থিম পার্ক ও রিসোর্ট হোটেলগুলো পুনরায় চালু করতে অপেক্ষা করা ছাড়া আমাদের আর কোনও পথ নেই।’

তথ্যসূত্র: রয়টার্স





আরও পড়ূন বাংলা ট্রিবিউনে

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: